kalerkantho


কালীগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি   

৫ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা শহরের হাসনা প্রাইভেট ক্লিনিকে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় আকলিমা খাতুন (৩৫) নামের এক প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মৃতের স্বজনরা শনিবার ক্লিনিকে ভাঙচুর করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আকলিমা খাতুন উপজেলার আড়পাড়া গ্রামের আব্দুল মাজেদের স্ত্রী।

আকলিমার স্বজনরা জানায়, শুক্রবার সকালে প্রসব বেদনা উঠলে আকলিমা খাতুনকে স্থানীয় হাসনা প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। দুপুর আড়াইটার দিকে ডা. প্রতাপ কুমার অস্ত্রোপচার করেন। এ সময় আকলিমা একটি ছেলেসন্তানের জন্ম দেন। এরপর থেকে তাঁর রক্তক্ষরণ শুরু হয়। কিন্তু ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ও ডাক্তারকে অনেকবার বলার পরও তাঁরা বিষয়টিকে গুরুত্ব দেননি। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আকলিমা মারা যান। তবে তাঁর ওই বাচ্চা সুস্থ আছে।

আকলিমার স্বামীর বড় ভাই মাসুদুর রহমান বলেন, ‘ক্লিনিকের ব্যবস্থাপনা খুবই খারাপ। ডাক্তারের ভুল চিকৎসায় ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে।’ এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি। কালীগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, প্রসূতির স্বজনদের অভিযোগ ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় ওই রোগীর মৃত্যু হয়েছে। মৃতের স্বজনরা ক্লিনিকে কিছুু চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এদিকে প্রসূতির মৃত্যুর পর থেকে ক্লিনিকের মালিক আব্দুর রহমান পলাতক রয়েছেন। তাঁর ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে একাধিকবার ফোন করলেও নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়। একইভাবে ডা. প্রতাপ কুমারের মোবাইলটিও বন্ধ থাকায় তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।


মন্তব্য