kalerkantho


তিন নারীর লাশ উদ্ধার

আরো এক যুবকের লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



তিন নারীর লাশ উদ্ধার

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে দুই সন্তানের জননী গৃহবধূ মানছুরা আক্তারের (২৮) রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে উপজেলার মক্রবপুর ইউনিয়নের তুলাগাঁও গ্রামে স্বামীর ঘর থেকে তাঁর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

একই দিন মেহেরপুর শহরে এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ, মাদারীপুরের কালকিনিতে এক তরুণী ও রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে মেহেরপুরের গৃহবধূকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছে তাঁর পরিবার। কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

কুমিল্লা (দক্ষিণ) : গৃহবধূ মানছুরা আক্তার নাঙ্গলকোট পৌরসভার হরিপুর গ্রামের মৃত জাকির হোসেনের মেয়ে। উপজেলার তুলাগাঁও গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে সালাহ উদ্দিন মানছুরার স্বামী। তিনি পলাতক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, প্রায় ১০ বছর আগে সালাহ উদ্দিনের সঙ্গে মানছুরার বিয়ে হয়। তাঁদের আট বছর বয়সী ছেলে ও চার বছর বয়সী মেয়ে রয়েছে। দুই বছর আগে সালাহ উদ্দিন এক নারীর সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়ান। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহ চলছিল।

গত বৃহস্পতিবার রাতে একই বিষয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রচণ্ড ঝগড়া হয়। গতকাল সকালে সালাহ উদ্দিন ও তার পরিবারের লোকজন মানছুরা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রতিবেশীদের কাছে প্রচার করে। পরে এলাকাবাসী ঘরের সিলিংয়ের সঙ্গে মানছুরার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয়। পুুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর সালাহ উদ্দিন গাঢাকা দেয়।

নাঙ্গলকোট থানার ওসি মোহাম্মদ আইয়ুব বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এটি আত্মহত্যা বলে মনে হয়েছে। তবে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন ও পুলিশের তদন্তের পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

মেহেরপুর : শহরের শিশু বাগানপাড়ায় স্বামীর বাড়ি থেকে গতকাল ভোরে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ জেমি খাতুনের (২৫) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে মেহেরপুর সদর থানার পুলিশ। জেমি শিশু বাগানপাড়ার আব্দুল খালেকের ছেলে রানার স্ত্রী ও সদর উপজেলার রাইপুর গ্রামের বাদশা মিয়ার মেয়ে। জেমি-রানা দম্পতির সাত বছর বয়সের একটি ছেলে আছে।

জেমির ভাই মো. রকি জানান, ৯ বছর আগে জেমির সঙ্গে রানার বিয়ে হয়। সম্প্রতি রানা এক মেয়ের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়ালে জেমি এর প্রতিবাদ করে। এতে ক্ষিপ্ত রানা বৃহস্পতিবার বিকেলে জেমিকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। রাতে বাড়ি ফিরেও জেমিকে মারধর করে। জেমির মৃত্যু হয়েছে ভেবে তাকে রান্নাঘরের চালার সঙ্গে গলায় ওড়না জড়িয়ে ঝুলিয়ে রাখে। পরে জেমি আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচারণা চালায় রানা। পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে মেহেরপুর মর্গে পাঠায়। রানা পলাতক থাকায় অভিযোগের বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

সদর থানার ওসি ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, জেমিকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হয়েছে বলে তিনি শুনেছেন। ময়নাতদন্ত শেষে বিকেলে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাদারীপুর : গতকাল সকালে কালকিনি উপজেলার চরসাহেবরামপুর গ্রামের আবুল হোসেন বেপারীর মেয়ে বৃষ্টি আক্তারের (১৮) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বৃষ্টিদের বাড়ির পাশের একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানায়, স্থানীয় লোকজন লাশটি দেখে পুলিশকে খবর দেয়। দুপুরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। কালকিনি থানার উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. বাশার বলেন, ‘ময়নাতদন্তের পরে আমরা ওই তরুণীর মৃত্যুর কারণ বলতে পারব। ’

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) : গোয়ালন্দের পদ্মা নদীতে এক অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের লাশ চার দিন ভেসে থাকার পর গতকাল দুপুরে উদ্ধার করে পুলিশ। উপজেলার ঢল্লাপাড়া গ্রামের পদ্মা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। মৃতের পরনে দুটি প্যান্টসহ একাধিক জামা ও গেঞ্জি ছিল। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গোয়ালন্দের দেবগ্রাম ইউনিয়নের মধু সরদারপাড়া গ্রামের পদ্মায় গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কয়েকজন লোক ওই লাশ দেখেন। বুধবার বিকেলে খবর পেয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার পুলিশ সেখানে ব্যাপক তল্লাশি চালায়। কিন্তু তখন সেখানে লাশের খোঁজ মেলেনি।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মির্জা আবুল কালাম আজাদ বলেন, সুরতহাল রিপোর্ট ও প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে, মৃত ব্যক্তিটি মানসিক রোগী ছিলেন। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে তাঁর মৃত্যুর কারণ বলা যাবে।


মন্তব্য