kalerkantho


অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ধরা

নওগাঁ প্রতিনিধি   

১৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



নওগাঁ সদর উপজেলায় কথিত প্রেমিকার হবু বরকে বিয়ের আসরে অস্ত্র মামলায় ফাঁসাতে গিয়ে তিন বন্ধুসহ প্রেমিক দাবিদার মো. কৌশিক ফায়সাল (২৫) ফেঁসে গেছেন। গতকাল শুক্রবার তাঁদের আটক করেছে পুলিশ।

কৌশিক ফায়সাল নওগাঁ সদরের বক্তারপুর গ্রামের সেলিম রেজার ছেলে। কৌশিকের সহযোগী তিন বন্ধু হলো নওগাঁ সদরের বক্তারপুর গ্রামের মোকলেছুর রহমানের ছেলে ফারুক হোসেন (২৫), ফেরদৌস হোসেনের ছেলে রিপন হোসেন ও দোগাছী ইয়াদ আলীর মোড়ের আব্দুর রশিদের ছেলে আল রাহিদ রিমন।

গতকাল ভোরে নওগাঁ গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওসি মো. জাকিরুল ইসলামের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশ তাদের পাকড়াও করে।

সূত্র জানায়, চকবুলাকী গ্রামের ইকবাল হোসেন দুলুর মেয়ে মোছা. রিয়া খাতুনের সঙ্গে সৌদি আরব প্রবাসী চট্টগ্রামের পটিয়ার রতনপুর গ্রামের টুনটু শীলের ছেলে রাজু শীলের (৩৪, নওমুসলিম) এক বছর আগে বিয়ে ঠিক হয়। গতকাল ছিল বিয়ের দিন। এদিকে বিয়ের আগে মোবাইল ফোনে ও সাক্ষাতে গোয়েন্দা পুলিশকে কৌশিক বলেন, ইকবাল হোসেন দুলুর বাড়িতে মাদকসহ আগ্নেয়াস্ত্র আছে। এসব লুকিয়ে রেখেছেন তাঁর হবু জামাই রাজু শীল। তিনি মাদক ও অস্ত্র ব্যবসায় জড়িত। এই অস্ত্র উদ্ধারে গোয়েন্দা পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজে লাগেন কৌশিকের বন্ধু ফারুক হোসেন।

গতকাল ভোররাতে ফারুকের দেখানো মতে পুলিশ মাটির নিচ থেকে গুলিসহ একটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করে।

এতে ডিবির ওসির সন্দেহ হলে ফারুককে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করলে তিনি ঘটনার রহস্য প্রকাশ করেন। পরে ওই চারজনকে আটক করে পুলিশ। আটক ব্যক্তিরা জানায়, ওই বিয়ে আটকানোর জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেন রিয়ার কথিত প্রেমিক কৌশিক। বিয়ের চার দিন আগে গত সোমবার রাতে কৌশিক বন্ধু ফারুক হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে এক রাউন্ড গুলিসহ একটি ওয়ান শ্যুটারগান কাগজ ও পলিথিনে মুড়িয়ে রিয়াদের বাড়ির কলপাড়ের পাশে মাটিতে লুকিয়ে রাখেন।

প্রসঙ্গত, গতকালই রাজু-রিয়ার বিয়ে হয়েছে।

 


মন্তব্য