kalerkantho


জীবননগরে দুর্বৃত্তরা কেড়ে নিল দিনমজুরের জীবন

ঝিনাইদহে যুবকের লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে ঘুমন্ত দিনমজুরকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তাঁর স্ত্রীকেও কোপানো হয়।

ঝিনাইদহে নির্মাণাধীন বাড়ি থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি মাদকাসক্ত ছিলেন বলে পরিবারের দাবি।

চুয়াডাঙ্গা : জীবননগর উপজেলায় ঘুমন্ত দিনমজুর আবুল কালামকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় বাধা দিলে তাঁর স্ত্রী আনোয়ারা বেগমকেও কোপানো হয়। গত বুধবার রাতে উপজেলার পাকা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। হত্যাকাণ্ডের কারণ জানা যায়নি। এ ব্যাপারে জীবননগর থানার ওসি এনামুল হক জানান, রাত ১২টার দিকে দুর্বৃত্তরা কালামের বাড়িতে হানা দেয়। এ সময় স্বামী-স্ত্রী বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিলেন।

হঠাৎ দুর্বৃত্তরা কালামকে কোপানো শুরু করে। এতে তিনি মারা যান। ঘটনাটি টের পেয়ে আনোয়ারা উঠে ঠেকাতে গেলে তাঁকেও কোপানো হয়। তাঁকে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রাতেই লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়।

ঝিনাইদহ : শহরের হামদহ সোনালী পাড়ায় নির্মাণাধীন বাড়ি থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার যুবক নূর আলমের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি মাগুরার শিবরামপুর গ্রামের হারুন অর রশিদের ছেলে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। খবর পেয়ে স্বজনরা হাসপাতালের মর্গে এসে লাশটি নূর আলমের বলে শনাক্ত করে। লাশের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। নূর আলমকে ধরে এনে শারীরিক নির্যাতন করে হত্যা করা হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। বিষয়টির তদন্ত চলছে। নূর আলমের পরিবারের দাবি, তিনি মাদকাসক্ত ছিলেন।


মন্তব্য