kalerkantho


খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি

ইউপি সদস্যরা প্রমোদভ্রমণে তদারকে নিরাপত্তাকর্মী

আলম ফরাজী, ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ)   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মাইজবাগ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চার সদস্য চার দিন ধরে কক্সবাজারে প্রমোদভ্রমণে থাকায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলাররা তালিকা পাননি। এ অবস্থায় চাল নিয়ে ডিলাররা দোকান খুলে বসে থাকলেও হতদরিদ্ররা তাদের কার্ড না পেয়ে ১০ টাকা কেজি দরের চাল কিনতে পারেনি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মাইজবাগ ইউপির ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবুল কালাম, ২ নম্বর ওয়ার্ডের মো. ইছব আলী, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মো. হোসেন মিয়া ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. মোমেন মিয়া চার দিন প্রমোদভ্রমণে কক্সবাজারে ছিলেন। ওই সময় চারটি ওয়ার্ডের আওতাধীন হতদরিদ্ররা কার্ড না পাওয়ায় চাল কিনতে পারেনি। গত মঙ্গলবার দুপুরে ওই চারজন কক্সবাজার থেকে এলাকায় আসেন। এর পরও কার্ড বিতরণে কোনো তত্পরতা দেখা যায়নি। গতকাল বুধবার ছিল চলতি সপ্তাহের চাল বিক্রির শেষ দিন। গতকাল যারা কার্ড হাতে পেয়েছে তারাও আগামী সোমবারের আগে চাল কিনতে পারবে না। কারণ সপ্তাহের সোম, মঙ্গল ও বুধবার চাল বিক্রির নির্দেশনা রয়েছে। তবে ওই ডিলারদের তদারকিতে খাদ্য অফিসের নিরাপত্তাকর্মীদের নিয়োগ দেওয়া নিয়ে চলছে সমালোচনা।

গতকাল দুপুরে মাইজবাগ বাজারে ডিলার মো. আমিনুল হক সজিব বলেন, তিন দিন ধরে তাঁর দোকানে চাল বিক্রি হয়নি।

তাঁকে হতদরিদ্রদের তালিকাও দেওয়া হয়নি। এসব কার্ড ও তাদের তালিকা ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবুল কালামের পৌঁছানোর কথা।

এর মধ্যে এই দোকান পরিদর্শন করে গেছেন খাদ্য অফিসের সাইদা বেগম নামের একজন। ডিলার সজিব পরিদর্শন খাতা দেখিয়ে বলেন, ‘স্যার আসছিলেন। তিনিও দেখে গেছেন। ’ পরে তাঁর (ডিলার) কাছ থেকে ওই খাদ্য অফিসের মোবাইল নম্বর নিয়ে ফোন করে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তিনি কোনো কর্মকর্তা নন। খাদ্য অফিসের নিরাপত্তাকর্মী। অফিসের নির্দেশে তদারক করেছেন।

ওই ডিলারের দোকানে আসেন খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির তালিকাভুক্ত মাইজবাগ পাছপড়া গ্রামের মো. শহিদ মিয়া ও সাদূর গোলা গ্রামের হযরত আলী। তাঁরা জানান, দুই দিন ধরে ঘুরছেন চাল নিতে। কিন্তু কার্ড না থাকায় নিতে পারছেন না।

একই ইউনিয়নের লক্ষ্মীগঞ্জ বাজারের ডিলার আবুল মনসুর বলেন, ‘মেম্বাররা আমোদ-ফুর্তি করতে কক্সবাজার গেছে। এই জন্য তারা আমরারে তালিকা ও কার্ড দিতে পারছে না। এই অবস্থায় আমরার কী করণের আছে?’


মন্তব্য