kalerkantho


কলাপাড়ায় গায়ে আগুন নারীর মৃত্যু

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নিজের গায়ে আগুন দেওয়া মানসিক রোগী ছালমা বেগমকে (৩০) ঢাকায় নেওয়ার পথে মারা গেছেন। তাঁর বাড়ি উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের বাদুরতলী গ্রামে।

গতকাল বুধবার দুপুরে তিনি মারা যান। নিহতের বোন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৯ মাস ধরে তিন মেয়ে আর এক ছেলের মা ছালমা বেগম মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন। মঙ্গলবার রাতে বড় ও মেজ মেয়ে কোচিংয়ে যায়। ছোট মেয়ে ও দেড় বছরের একমাত্র ছেলে ঘরে ঘুমিয়েছিল। স্বামী ফজলুল হক বাদুরতলী স্লুইস গেট এলাকায় মুদি দোকানে থাকার সুযোগে ছালমা নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন। এ সময় তাঁর চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এসে দ্রুত তাঁকে কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে যায়।

কলাপাড়া হাসপাতালের চিকিৎসক জে এইচ খান লেনিন জানান, অগ্নিদগ্ধ ছালমাকে কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাঁকে দ্রুত বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নিহতের বোন লাইজু বেগম বলেন, তাঁর বোন দীর্ঘদিন ধরে মানসিক রোগী ছিলেন।

মাঝেমধ্যে কাউকে চিনতে পারতেন না। সব সময় অসংলগ্ন কথাবার্তা বলতেন। তিনি নিজেই নিজের গায়ে আগুন দিয়েছেন বলে তাঁরা নিশ্চিত হয়েছেন। এ ঘটনায় তাঁরা কাউকে দোষ দিচ্ছেন না।

কলাপাড়া থানার ওসি জি এম শাহনেওয়াজ জানান, এ ঘটনায় কলাপাড়া থানায় কেউ অভিযোগ জানায়নি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য