kalerkantho


পুড়ল জুটমিল গুদাম দোকান ও বসতঘর

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



লক্ষ্মীপুর, ফরিদপুর, নীলফামারী, রাজবাড়ীর কালুখালী, নওগাঁর মান্দা ও ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। রবি ও সোমবার এসব অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

বিস্তারিত আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে।

লক্ষ্মীপুর : শহরের তিতাখাঁ জামে মসজিদের পেছনে সোমবার দুপুরে হাছান ইলেকট্রিক অ্যান্ড সাপ্লাইয়ার্সের গুদামঘরে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ওই দোকানের স্বত্বাধিকারী মো. হাছান বলেন, ‘আগুন লেগে আমার গোডাউনের সব মালপত্র পুড়ে গেছে।

লক্ষ্মীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক ফরিদ আহম্মদ চৌধুরী জানান, পাশের ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

ফরিদপুর : শহরের নিলটুলী এলাকায় সোমবার সকালে টাউন থিয়েটার ভবনে রায়হানা ফার্মেসি ও সিদ্দিকিয়া ফার্মেসি নামের দুটি ওষুধের দোকান পুড়ে গেছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। রায়হানা ফার্মেসির মালিক সুশীল মালো জানান, ‘স্থানীয় সৌখিন সমিতি থেকে ঋণ নিয়ে ব্যবসা করছিলাম। আগুনে পুড়ে সব শেষ হয়ে গেছে।

‘সিদ্দিকিয়া ফার্মেসির মালিক আব্দুর রহমান বলেন, ‘আগুনে যে ক্ষতি হয়েছে তা কিভাবে কাটিয়ে উঠব বুঝতে পারছি না। ’ ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিসের জ্যেষ্ঠ স্টেশন অফিসার মো. সাইফুজ্জামান জানান, রায়হানা ফার্মেসিতে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত। এ সময় দুটি ফার্মেসিই বন্ধ ছিল। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভান।

ময়মনসিংহ : গফরগাঁওয়ের ৩ নম্বর চরআলগীর চরমছলন্দ গ্রামে গত রবিবার রাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে ওই গ্রামের আবুল মুনসুর খোকার দুটি বসতঘর, মো. রফিকুল ইসলামের একটি ঘর ও মো. কামাল মিয়ার একটি ঘর পুড়ে যায়। এ সময় আগুনে চারটি গরু দগ্ধ এবং একটি মারা গেছে।

গফরগাঁও ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. আবুল হোসেন জানান, প্রায় আধা ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে তাঁরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

নওগাঁ : নওগাঁর মান্দা উপজেলার দক্ষিণ নুরল্লাবাদ গ্রামে গতকাল সোমবার দুপুরে আগুনে চারটি ঘর পুড়ে গেছে। স্থানীয় লোকজন জানায়, গ্রামের কুবাদ আলীর রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত। মুহূর্তে আগুন আশপাশের বাড়িঘরে ছড়িয়ে পড়ে। নিয়ামতপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

নীলফামারী : নীলফামারীতে অগ্নিকাণ্ডে ১৪ পরিবারের ৩৩ ঘর, আসবাব ও ঘরে রক্ষিত মালামাল পুড়ে গেছে। সোমবার দুপুরে উপজেলার ইটাখোলা ইউনিয়নের দোলাপাড়া গ্রামে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সোমবার দুপুরে ওই গ্রামের মানিক চন্দ্র রায়ের রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে নীলফামারী ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

রাজবাড়ী : কালুখালী উপজেলার রতনদিয়া ইউনিয়নের রূপপুর গ্রামে অবস্থিত কিং জুট মিলে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে ওই মিলের পাঁচ কোটি টাকা সম্পদের ক্ষতি হয়েছে। মিল মালিক আব্দুর রাজ্জাক জানান, সোমবার বিকেলে মিলটির একটি শেড থেকে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন অন্য শেডগুলোতে ছড়িয়ে পড়লে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা সন্ধ্যা ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।


মন্তব্য