kalerkantho


গাইবান্ধার কর্মসৃজন কর্মসূচি

তিন ইউনিয়নে কাজ শুরু করা যায়নি

গাইবান্ধা প্রতিনিধি   

১৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ইউপি চেয়ারম্যানদের অসহযোগিতার কারণে গাইবান্ধার ফুলছড়ি ও সাঘাটার তিনটি ইউনিয়নে এখনো কর্মসৃজন কর্মসূচির কাজ শুরু করা যায়নি। অথচ সরকার নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী নতুন করে আর কাজ শুরু করার সুযোগও নেই। ফলে ওই তিন ইউনিয়নের সহস্রাধিক পরিবার সরকারের এ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ইউনিয়নগুলো হচ্ছে—ফুলছড়ির কঞ্চিপাড়া, সাঘাটার কামালেরপাড়া ও বোনারপাড়া।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে অতিদরিদ্র কর্মহীন মানুষের কাজের সুযোগ সৃষ্টির জন্য গত ৭ জানুয়ারি থেকে ৪০ দিনের এ কর্মসূচি শুরু করার কথা। সে অনুযায়ী গত ৮ মার্চ এ কর্মসূচির মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যায়। পরে সময় বর্ধিত করায় ১১ জানুয়ারি শুরু হয়ে ১১ মার্চ শেষ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়। এ কর্মসূচির আওতায় তালিকাভুক্ত দরিদ্র মানুষেরা প্রত্যেকে ২০০ টাকা হারে মজুরি পেয়ে থাকে। সরকারি পরিপত্র অনুযায়ী ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সী চার হাজার টাকার নিচে যাদের মাসিক আয়, তারাই এ কর্মসূচির আওতায় আসবে। নিয়ম অনুযায়ী গত বছর যারা এ কর্মসূচির আওতায় তালিকাভুক্ত হয়ে কাজ করেছে, তারাই এ সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবে। এ ক্ষেত্রে অভিযোগ রয়েছে, অনেক এলাকায় নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান-মেম্বাররা সরকারের ওই নীতিমালা না মেনে অর্থের বিনিময়ে নতুন নাম যুক্ত করে নতুন তালিকা প্রণয়ন করার পাঁয়তারা করে।

এর মধ্যে অবস্থাপন্ন ও সম্পদশালী ব্যক্তিদের নামও রয়েছে। এ কারণে তালিকা প্রণয়নে দেরি হচ্ছে এবং কাজও শুরু করা যায়নি।


মন্তব্য