kalerkantho


দুই নেতার বিরোধ

মাগুরায় প্রাণ গেল ৫০০ কলাগাছের

মাগুরা প্রতিনিধি   

১৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



দুই আওয়ামী লীগ নেতার বিরোধে মাগুরা সদর উপজেলার ধলহরা চাঁদপুর মাঠে পাঁচ বিঘা জমির পাঁচ শতাধিক কলাগাছ রবিবার রাতে দুর্বৃত্তরা কেটে ফেলেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক আব্দুর রকিব ফকির, রাজ্জাক মণ্ডল ও আওয়াল ফকির জানান, ধলহরা চাঁদপুরে স্থানীয় আওয়ামী লীগে প্রভাব বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে।

যার এক পক্ষে রয়েছেন চাউলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৮ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সদস্য আতিয়ার। অন্যপক্ষে বিএনপি থেকে আসা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সদস্য আওয়াল শেখ। সম্প্রতি সামাজিক দলবদল নিয়ে উভয়ের মধ্যে বিরোধ হয়। আতিয়ারের পক্ষে থাকা আব্দুর রকিব ফকির, রাজ্জাক মণ্ডল ও আওয়াল ফকিরকে প্রতিপক্ষ নেতা আওয়াল শেখ তাঁর সামাজিক দলে যোগ দিতে বলেন। কিন্তু তাঁরা তাতে রাজী না হওয়ায় রবিবার রাতে আওয়াল ও তাঁর লোকজন রকিবের এক বিঘা, রাজ্জাকের তিন বিঘা ও আওয়াল শেখের এক বিঘা জমির কলাগাছ কেটে ফেলেছে। যার মধ্যে অনেক গাছে কলা ধরেছিল। এতে তাঁদের কমপক্ষে পাঁচ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে।

আওয়ামী লীগ নেতা আওয়াল শেখ বলেন, ‘আতিয়ার মেম্বারের লোকজন সামাজিক বিরোধের জের ধরে বৃস্পতিবার আমার ছেলে ইকরাম শেখকে পিটিয়ে পা ভেঙে দিয়েছে। সে বর্তমানে মাগুরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় আমি আতিয়ার মেম্বারসহ ১০ জনের নামে সদর থানায় মামলা করেছি। এ মামলায় আতিয়ার জেলহাজতে রয়েছে। মামলার অভিযোগকে ভিন্ন খাতে নিতে তারা নিজেরা নিজেদের গাছ কেটে আমাদের ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছে। যে গাছগুলো তারা কর্তন দেখাচ্ছে, তার কলাগুলো আগেই কেটে নিয়ে গেছে। এসব কলা তাদের বাড়িতেই আছে। এখন নিজেরা রাতের আঁধারে গাছ কেটে এ ধরনের অভিযোগ আনছে। ’ পাশের মালিকগ্রামের বাসিন্দা সায়েদ শেখ ও রাজিব হাসান জানান, তাঁদের বিরোধ মেটাতে এর আগে জেলা আওয়ামী লীগ নেতারা একাধিক বৈঠক করেছেন। কিন্তু ফল হয়নি।


মন্তব্য