kalerkantho


অভিযোগপত্র চার আসামির বিরুদ্ধে

রাজবাড়ীতে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মারপিট

অন্যান্য   

১২ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



রাজবাড়ী প্রতিনিধি: রাজবাড়ীর বরাট ভাকলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মারপিটের ঘটনার তদন্ত শেষে অভিযুক্ত চার আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ। অভিযুক্তরা হলেন রাজবাড়ী জেলা সদরের বরাট ইউনিয়নের এলাইল গ্রামের মৃত আজগর মোল্লার ছেলে আব্দুস ছাত্তার মোল্লা, ছাত্তার মোল্লার স্ত্রী ফিরোজা বেগম, ছেলে মুন্না মোল্লা ও মেয়ে তিন্নি খাতুন।

 

ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শম্পা প্রমাণিক জানান, আসামিদের বাড়ি তাঁর স্কুলের মাঠের পাশে। আসামিরা লাকড়ি শুকানোসহ সাংসারিক কাজ এ স্কুলের মাঠেই করতেন। এতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের হাঁটাচলা ও খেলাধুলা বাধাগ্রস্ত হয়। ফলে স্কুল চলাকালে ওই কাজগুলো না করার জন্য বারবার বলা হলেও তাঁরা তা মানেননি। গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর দুপুরে বিদ্যালয়ের ভরা ট্যাংক থেকে পানি পড়লে আসামিরা শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে। ওই সময় বিদ্যালয়ের দপ্তরি আরিফ হোসেন এর প্রতিবাদ করেন। এতে আসামিরা ক্ষিপ্ত হয়ে দপ্তরিকে মারপিট করেন। সহকারী শিক্ষক আব্দুল্লাহ আল মামুন এগিয়ে গেলে তাঁকেও মারপিট করেন। পরে বিদ্যালয়ের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির শিশুরা এগিয়ে যায়।

আসামিরা চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র আরিফ হোসেন, সাগর, একই ক্লাসের ছাত্রী শান্তা, উম্মে জহুরা, শারীরিক প্রতিবন্ধী কাউছারসহ ১০ শিক্ষার্থীকে মারপিট করেন। তাদের চিত্কারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে আসামিরা চলে যান। পরে আহতদের রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চিকিত্সা দেওয়া হয়। এ ঘটনার জন্য প্রধান শিক্ষক বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও রাজবাড়ী থানার এসআই আব্দুল খালেক জানান, মামলার পরপরই প্রধান আসামি ফিরোজা বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়। সেই সঙ্গে দীর্ঘদিন তদন্ত শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়।


মন্তব্য