kalerkantho


ইমিগ্রেশন ভবন নির্মাণে ভারতের আপত্তি

আখাউড়া স্থলবন্দর

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

১২ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দরে বাংলাদেশ পুলিশের নতুন ইমিগ্রেশন ভবন নির্মাণে আপত্তি জানিয়েছে ভারত। অনুমতি ছাড়া সীমান্ত এলাকায় কোনো ধরনের স্থাপনা নির্মাণ করা যাবে না মর্মে গত শুক্রবার চিঠি দিয়েছে ভারতের সীমান্তরক্ষা বাহিনী (বিএসএফ)।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সম্প্রতি আখাউড়া ইমিগ্রেশনের নতুন ভবন নির্মাণের দরপত্র আহ্বান করা হয়। ঠিকাদার কয়েক দিন ধরে নির্মাণসামগ্রী এনে জড়ো করছেন। এ অবস্থায় বিএসএফ বিষয়টি প্রথমে মৌখিকভাবে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশকে (বিজিবি) অবহিত করে। পরে গত শুক্রবার বিকেলে তারা এ বিষয়ে একটি চিঠি স্থলবন্দর ক্যাম্পের বিজিবিকে দেয়। ওই চিঠিতে অনুমতি সাপেক্ষে ভবন নির্মাণ করতে বলা হয়। বিজিবি বিষয়টি ইতিমধ্যে পুলিশের ঊর্ধ্বতনদের অবহিত করেছে। জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার সহকারী সুপার (এএসপি) সোনিয়া পারভীন গতকাল শনিবার বিকেলে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘কাজ করতে বিএসএফ কোনো বাধা দেয়নি। নিয়ম অনুসারে যেভাবে অনুমতি নিয়ে ভবন নির্মাণ প্রয়োজন সেভাবেই আমরা কাজ শুরু করব। এখন তো শুধু সয়েল টেস্টের (মাটি পরীক্ষা) কাজ করা হচ্ছে।

বিজিবি-১২ ব্যাটালিয়নের কমান্ডার লে. কর্নেল শাহ্ আলী বলেন, ‘আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুসারে সীমান্ত এলাকার নির্দিষ্ট সীমারেখায় স্থাপনা করতে সংশ্লিষ্টদের অনুমতির প্রয়োজন হয়। বিএসএফ তাদের দেওয়া চিঠিতে উল্লেখ করেছে, অনুমতি নিয়ে কাজ করলে কোনো আপত্তি নেই। বিষয়টি নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপারের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। নিয়ম অনুসারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিয়েই এখানে নির্মাণকাজ শুরু করা হবে। ’

উল্লেখ্য, আখাউড়া স্থলবন্দরসংলগ্ন এলাকার ওপারে ভারতীয়রাও কয়েক বছর আগে অত্যাধুনিক ইন্টিগ্রেটেড (সমন্বিত) চেকপোস্ট ভবন নির্মাণ করে।


মন্তব্য