kalerkantho


জলঢাকায় পুড়ল পাটগুদাম, বাড়ি ও দোকান

নীলফামারী প্রতিনিধি   

১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



নীলফামারীর জলঢাকায় রহস্যজনক আগুনে পুড়েছে একটি পাটের গুদাম, তিনটি ঘর ও একটি মুদি দোকান। গত বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার কদমতলী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এতে প্রায় ৩৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন পাটগুদামের মালিক।

এলাকাবাসী জানায়, বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ২টার দিকে কদমতলী গ্রামের রওশন আলীর পাটগুদামে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার দুপুরে পাটগুদামের মালিক রওশন আলীর ছেলে আব্দুর রহিম বলেন, ‘গুদাম থেকে প্রায় ১০০ গজ দূরে আমাদের বাড়ি। রাত পৌনে ২টার দিকে এলাকাবাসীর চিৎকারে এসে দেখি আমাদের পাটের গুদামে আগুন জ্বলছে। এ সময় ফায়ার সার্ভিসে একাধিকবার ফোন দিয়েও পাওয়া যায়নি। পরে লোক পাঠিয়ে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে আসে। তারা সময়মতো না আসায় উত্তেজিত এলাকাবাসী তাদের ওপর চড়াও হয়। পড়ে নীলফামারী ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ’

ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির মালিক এন্তাজুল ইসলামের ছেলে আবু তালেবের অভিযোগ, ‘পাটগুদামের মালিক বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে বাকিতে পাট কিনেছেন।

পাওনাদাররা তাঁকে টাকার জন্য চাপ দিলে শুক্রবার তাঁদের

টাকা পরিশোধের কথা দেন। টাকা যাতে দেওয়া না লাগে তাই নিজেরাই এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটিয়েছেন। ’

জলঢাকা ফায়ার সার্ভিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মমতাজুল ইসলাম বলেন, ‘রাত ২টার দিকে খবর পেয়ে আমি ফায়ার সার্ভিস নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে আগুন নেভানোর সময় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের ওপর হামলা চালানো হয়। পরে নীলফামারী ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নেভায়। ’

অগ্নিকাণ্ডকে রহস্যজনক আখ্যা দিয়ে জলঢাকা থানার ওসি (তদন্ত) মো. মফিজ উদ্দিন বলেন, এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য