kalerkantho


সেই পাখিবন্ধুকে কুপিয়ে জখম

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

১০ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



সেই পাখিবন্ধুকে কুপিয়ে জখম

আবু আব্দুল্লাহ স্বপন

মাদক সেবন, ছিনতাই ও ইভ টিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় রাজবাড়ীর পাখিপ্রেমী চারুশিল্পী আবু আব্দুল্লাহ স্বপনকে (৪৫) কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা। তাঁকে রাজবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি জেলা শহরের টিঅ্যান্ডটিপাড়ার খোকনবাবুর পুকুরচালা গ্রামের আবু তাহের পাটোয়ারীর ছেলে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজবাড়ী হাসপাতালের সার্জিক্যাল ওয়ার্ডের শয্যায় শুয়ে থাকা স্বপন বলেন, তিনি বাসায় চারুকারু শেখান। বেশ কিছুদিন ধরে সেখানে পাশের শ্রীপুর গ্রামের মশিউর রহমান মিথুনের (২০) নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত তাঁর চারুকারু স্কুলে এসে গাঁজা, ইয়াবাসহ নানা রকম মাদক সেবন করে। একই সঙ্গে সামনের সড়কে দাঁড়িয়ে বিভিন্ন বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসা করা ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করে। মাঝেমধ্যে রিকশা ও অটোরিকশা চালক ও যাত্রীদের ধরে এনে বিদ্যালয়ের পাশে মারপিট এবং তাদের মোবাইল ফোন ও টাকা ছিনিয়ে নেয়। বিষয়টি বাড়াবাড়ি মাত্রায় পৌঁছে যাওয়ায় তিনি মিথুনকে একাধিকবার এসব অন্যায় কাজ না করার জন্য অনুরোধ জানান। অনুরোধ উপেক্ষা করে মিথুন ও তাঁর সহযোগীরা চারুকারু স্কুলে এসে মাদক সেবন অব্যাহত রাখে। গত বুধবার দুপুরে ফের মাদক সেবনের চেষ্টা করে। এ সময় তিনি নিষেধ করলে মিথুন ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। একপর্যায়ে তাঁর মাথা লক্ষ্য করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ মারেন। তবে তিনি বাঁ হাত দিয়ে তা প্রতিহত করেন। এতে তাঁর ওই হাতের চারটি আঙুলের অংশবিশেষ কেটে যায়। তাঁর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসে এবং তারা তাঁকে উদ্ধার করে। পরে তাঁকে রাজবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

স্বপনের ছোট ভাই লেলিন পাটোয়ারী বলেন, ‘মিথুনের বিরুদ্ধে কলেজ ছাত্র বিপুলকে কুপিয়ে হত্যা, একটি সমিতির কর্মচারীকে কুপিয়ে জখম করাসহ ইভ টিজিং ও ছিনতাইয়ের অভিযোগ রয়েছে। তাঁর ভয়ে এলাকার সাধারণ মানুষ কথা বলার সাহস পায় না। ’ উল্লেখ্য, ঝড়ে বা অন্য কোনো কারণে পাখিরা আহত হলে তিনি তা এনে যত্ন করেন। তাদের খাবার খাওয়ান। সুস্থ হলে ছেড়ে দেন। তাঁকে নিয়ে ২০১৬ সালের ২১ মে ‘আহত পাখির বন্ধু’ শিরোনামে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করে কালের কণ্ঠ।

রাজবাড়ী থানার ওসি মোহাম্মদ আবুল বাশার মিয়া বলেন, ‘থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেব। ’


মন্তব্য