kalerkantho


ফি নিয়েও সমীক্ষা করেনি পল্লী বিদ্যুত্ সমিতি

কৃষকের কাছ থেকে বিলের দ্বিগুণ অর্থ আদায়ের অভিযোগ

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

৯ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



নিয়মনীতি মেনে আবেদনের পর আবাসিক বিদ্যুত্ সংযোগ থেকে সেচ পাম্প চালানোর অনুমতি পান কৃষকরা। এর পরও জরিমানা গুনতে হচ্ছে তাঁদের। ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুত্ সমিতি-৩-এর ঈশ্বরগঞ্জ উপ-আঞ্চলিক কার্যালয়ের (সাব-জোনাল অফিস) বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেছেন ওই অফিসের আওতাধীন ঈশ্বরগঞ্জ গ্রামের কৃষকরা।

উপজেলার মাইজবাগ ভাষা গকুলনগর গ্রামের কৃষক মো. শামছুল হক গতকাল বুধবার অভিযোগ করেন, পল্লী বিদ্যুত্ সমিতির (পবিস) ঈশ্বরগঞ্জ উপ-আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে চলতি বছরের শুরুতে মাইকিং করা হয়। তাতে বলা হয়, আবাসিক সংযোগ থেকে সর্বোচ্চ দেড় অশ্বশক্তিসম্পন্ন সেচ পাম্প চালানোর জন্য আবেদন করা যাবে। ওই ঘোষণা শুনে তিনি সমিতির নির্ধারিত এক হাজার টাকা ‘সমীক্ষা ফি’ জমা দিয়ে আবেদন করেন। চলতি বোরো মৌসুমে তিনি ২০০ শতক জমিতে বোরো আবাদ করেন। তাঁর আবাসিক সংযোগ থেকে একটি সেচ পাম্প চালিয়ে জমিতে পানি দেন। ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি ৩১০ ইউনিট বিদ্যুত্ ব্যবহার করেছেন। সেই হিসাবে তাঁর বিল হয়েছে এক হাজার ৬৩৩ টাকা। কিন্তু সেচ পাম্প চালানোর কারণে তাঁকে এক হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এ ছাড়া ফি নিলেও পবিস ঈশ্বরগঞ্জ তাঁর এলাকায় কোনো ধরনের সমীক্ষা চালায়নি। ভাষা গকুলনগর গ্রামের প্রায় ২৫ জন কৃষক তাঁদের দুরবস্থার কথা তুলে ধরে এর প্রতিকার দাবি করেন। কৃষকরা বলেন, ‘এভাবে জরিমানা করে আমাদের ক্ষতিগ্রস্ত করছে পবিস। প্রতিবাদ করলে মামলার ভয় দেখানো হয়। ’

আবু সাইদ নামের এক কৃষক বলেন, ‘প্রতিকার চেয়ে পবিসের ঈশ্বরগঞ্জ কার্যালয়ে গেছি। সেখানে কথা বলামাত্রই আমাকে দূরদূর করে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ’ আবু সাইদ জানান, তিনি গত মাসে ১৪০ ইউনিট বিদ্যুত্ ব্যবহার করেছেন। প্রকৃত বিল হয়েছে ৬৮৭ টাকা। কিন্তু সেচ পাম্প ব্যবহারের কারণে তাঁর বিলে দেড় হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। কৃষকদের অভিযোগ, পবিস কৃষকের কাছে জরিমানা আদায়ের প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিণত হয়েছে। পবিসের ঈশ্বরগঞ্জ উপ-আঞ্চলিক কার্যালয়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, এই কার্যালয়ের আওতাধীন এলাকায় গত সাত বছর ধরে সেচের নতুন সংযোগ প্রদান বন্ধ রাখা হয়েছে। চলতি বছর ২৬টি গভীর নলকূপে বৈদ্যুতিক সংযোগ দেওয়া হয়েছে। তবে ক্ষুদ্র প্রান্তিক চাষিরা জমির ফসল রক্ষা করার জন্য তাঁদের আবাসিক সংযোগ থেকে সেচ পাম্প চালালেই প্রতি বছর মোটা অঙ্কের টাকা জরিমানা গুনতে হচ্ছে।


মন্তব্য