kalerkantho


নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

চিকিৎসক ফার্মাসিস্ট অনুপস্থিত দীর্ঘদিন সেবাবঞ্চিত রোগীরা

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ময়মনসিংহের নান্দাইল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত দুই চিকিৎসক ও একজন ফার্মাসিস্ট যোগদানের পর থেকে কর্মস্থলে অনুপস্থিত রয়েছেন। দুই চিকিৎসকের একজন পাঁচ বছর, আরেকজন চিকিৎসক ও ফার্মাসিস্ট তিন বছর ধরে অনুপস্থিত।

তাঁরা আমেরিকা অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে। আর কাগজে-কলমে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক হিসেবে বহাল আছেন। এই অবস্থায় চিকিৎসকশূন্য হাসপাতালে সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে রোগীরা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, নান্দাইল ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের সহকারী সার্জন ডা. জান্নাতুল ফেরদৌস ২০১১ সালের ৮ জুন যোগদান করেন। সহকারী সার্জন ডা. অনুজা রায় বণিক ২০১৩ সালের ২৫ নভেম্বর ও একজন ফার্মাসিস্ট আমিনা বেগম ২০১৩ সালের ১৬ জুন যোগদান করেন। এর পর থেকে তাঁরা আর কোনো দিন কর্মস্থলে উপস্থিত হননি। প্রতি মাসে  কর্মস্থলে যোগদানের নির্দেশ দিয়ে চিঠি দেওয়া হচ্ছে। একাধিকবার তাঁদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থাসহ কর্মস্থলের পদ খালি করার জন্য চিঠি দেওয়া হয়। কিন্তু এ বিষয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোনো সাড়া পায়নি।

এমনকি ওই তিনজন কর্মস্থলেও যোগ দেননি। বিনা ছুটিতে কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকার বিষয়টি শাস্তিযোগ্য অপরাধ হলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপই গ্রহণ করছে না।

নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তাজুল ইসলাম জানান, ডিসেম্বরের শেষ দিকে ডা. জান্নাতুল ফেরদৌস হঠাত্ তাঁর কার্যালয়ে আসেন। এ সময় তিনি তাঁর এসিআর দেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করা হয়।

গতকাল মঙ্গলবার ডা. জান্নাতুল ফেরদৌসের মা রোকেয়া খানম কালের কণ্ঠকে জানান, তাঁর মেয়ে এ মাসেই আবারও আমেরিকায় চলে গেছেন। তাঁরা ওখানেই সেটেল। অন্যদিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, অন্য চিকিৎসক অনুজা রায় বণিক ও ফার্মাসিস্ট আমিনা বেগম বর্তমানে আমেরিকায় রয়েছেন।

ডা. তাজুল ইসলাম আরো জানান, তাঁর কার্যালয় থেকে প্রতি মাসেই তাঁদের অনুপস্থিতির বিষয় নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির মাসিক সভায় আলোচনা করে রেজল্যুশনে উঠানো হয়।

ময়মনসিংহ জেলা সিভিল সার্জন মো. খলিলুর রহমান জানান, ময়মনসিংহ জেলায় যত চিকিৎসক অনুপস্থিত রয়েছেন, তাঁদের একটা তালিকা করে মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য