kalerkantho


দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথ

মাঝনদীতে সাত ফেরি ঘাটে শত শত গাড়ি

ঘন কুয়াশায় তিন ঘণ্টা সার্ভিস বন্ধ

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি   

৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



মাঝনদীতে সাত ফেরি ঘাটে শত শত গাড়ি

হঠাৎ ঘন কুয়াশায় গতকাল দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে টানা তিন ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। ফলে দৌলতদিয়া ঘাটে নদী পারের অপেক্ষায় আটকা পড়ে শত শত যানবাহন। ছবিটি গতকাল সকালে তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

ফাল্গুনের শেষ ভাগে হঠাৎ ঘন কুয়াশা পড়ায় মঙ্গলবার ভোর সোয়া ৫টা থেকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে টানা তিন ঘণ্টা ফেরি সার্ভিস বন্ধ ছিল। এ সময় বিভিন্ন গাড়ি ও যাত্রী নিয়ে সাতটি ফেরি মাঝনদীতে আটকে পড়ে।

এদিকে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় গতকাল দৌলতদিয়া ঘাটে নদীপারের অপেক্ষায় থাকে যাত্রীবাহী বাস, মাইক্রোবাস, পণ্যবাহী ট্রাকসহ কয়েক শ গাড়ি। এতে ফেরিঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে দৌলতদিয়া-খুলনা মহাসড়কের বাংলাদেশ হ্যাচারিজ এলাকা পর্যন্ত চার কিলোমিটার রাস্তায় গাড়ির দীর্ঘ সারি দেখা যায়। এ সময় আটকা পড়া বিভিন্ন বাসের যাত্রীরা ভোগান্তিতে পড়ে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থার (বিআইডাব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. শফিকুল ইসলাম জানান, বেশ কিছুদিন বিরতির পর গত সোমবার মাঝরাত থেকে নদী অববাহিকায় হালকা কুয়াশা পড়তে থাকে। পরে সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কুয়াশার ঘনত্ব বেড়ে যায়। একপর্যায়ে নৌ চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়লে মঙ্গলবার ভোর সোয়া ৫টা থেকে নৌ রুটে ফেরি, লঞ্চসহ সব নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। এ সময় কুয়াশার কবলে পড়ে বিভিন্ন গাড়ি ও যাত্রী নিয়ে খানজাহান আলী, কাবেরী, কপোতী, চন্দ্রমল্লিকা, রজনীগন্ধা, বনলতা ও হাসনাহেনা নামের সাতটি ফেরি মাঝনদীতে আটকা পড়ে। অন্য আটটি ফেরি পরিপূর্ণ হয়ে উভয় পারের বিভিন্ন ঘাট পন্টুনে ভিড়ে থাকে। পরে কুয়াশা কমলে সকাল সোয়া ৮টা থেকে ফের ফেরি সার্ভিস চালু হয়।

 


মন্তব্য