kalerkantho


অবশেষে জুয়ার আসর গুঁড়িয়ে দিল প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



হাই স্কুল, মসজিদ ও মাদরাসার ১০ গজের মধ্যে চলছিল নগ্ন নৃত্য ও জুয়ার আসর। অবৈধ ও সর্বনাশা ওই আসর বন্ধে এলাকাবাসী শুরু থেকেই দাবি করে আসছিল। এ জন্য এলাকায় বিক্ষোভও হয়। অবশেষে সোমবার জেলা প্রশাসন অবৈধ ও আসর ভেঙে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয়। এতে এলাকার মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। জানা গেছে, সদর উপজেলার বাঘের বাজার এলাকার একটি মাঠে চার মাস ধরে চলে আসছিল নগ্ন নৃত্য ও লাখ লাখ টাকার জুয়ার আসর। স্থানীয় বিএনপি নেতা শফিকুল ইসলাম সফি ও শ্রীপুরের শীর্ষ জুয়াড়ি রানা এ জুয়ার আসর পরিচালনা করতেন। প্রতিরাতে শত শত প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস ও বাসে করে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে জুয়াড়িরা বাঘের বাজারে আসত।

জুয়ার মাঠের ১০ গজের মধ্যে একটি হাই স্কুল, একটি কিন্ডারগার্ডেন স্কুল, একটি মসজিদ ও একটি মাদরাসা। মাইকের আওয়াজ ও নৃত্যে ওই স্কুলের আশপাশের এলাকার তিন শতাধিক এসএসসি পরীক্ষার্থীর লেখাপড়া বিঘ্নিত হচ্ছিল। কারখানার শ্রমিকরা বেতনের টাকা জুয়ায় হেরে নিঃস্ব হতো।

এসব বন্ধে আন্দোলন করতে গিয়ে এলাকাবাসীকে উল্টো হয়রানির স্বীকার হতে হয়েছে। অবশেষে সোমবার র‌্যাবকে সঙ্গে নিয়ে জুয়ার আসরে অভিযান চালান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আশরাফ উদ্দিন। পরে আসর ভেঙে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়।


মন্তব্য