kalerkantho


গাংনীতে শিক্ষা সফরের গাড়িবহরে ডাকাতি

মেহেরপুর প্রতিনিধি   

৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



শিক্ষা সফর শেষে ফেরার পথে মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের গাংনী উপজেলার শুকুরকান্দিতে ডাকাতের কবলে পড়ে মেহেরপুর পৌর ডিগ্রি কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বহন করা গাড়িবহর। ডাকাতদল শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জিম্মি করে তাদের কাছ থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোনসেটসহ ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়েছে। রবিবার রাত ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, রবিবার মেহেরপুর পৌর ডিগ্রি কলেজ থেকে ছয়টি বাস ভাড়া করে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা মিলে নওগাঁ জেলার পাহাড়পুরের সোমপুর বৌদ্ধ বিহারে শিক্ষা সফরে যায়। শিক্ষা সফর শেষে মেহেরপুর ফেরার পথে রাত ৩টার দিকে মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের গাংনীর শুকুরকান্দি নামক স্থানে ডাকাতদলের কবলে পড়ে। ২০-২৫ জন ডাকাত গাছ কেটে রাস্তায় ফেলে অস্ত্রের মুখে ঘণ্টাব্যাপী ওই ছয়টি বাসে তাণ্ডব চালায়। এ সময় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোনসেটসহ ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে গাংনী থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই ডাকাতরা পালিয়ে যায়।

মেহেরপুর পৌর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ একরামুল আযীম জানান, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, গাড়ির লোকজন মিলে ২৫৩ জন যাত্রী ছিল ছয়টি পরিবহনে। তাদের কাছ থেকে চার লাখ টাকা, ১২ ভরি স্বর্ণালংকার, সাতটি দামি মোবাইল ফোনসেটসহ প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

গাংনী থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই ডাকাতদল পালিয়ে গেছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত ডাকাতদের আটকের চেষ্টা চলছে।

বেড়ায় বাজারে ডাকাতি

এদিকে পাবনার আঞ্চলিক প্রতিনিধি জানান, পাবনার বেড়া উপজেলার নাকালিয়া বাজারে সাতটি দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা পাহারাদারসহ বাজারের অন্য লোকজনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত-পা বেঁধে রেখে দোকান থেকে স্বর্ণালংকারসহ প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল লুটে নিয়ে যায়। বেড়া মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে স্পিডবোটের জন্য জ্বালানি তেল কেনার কথা বলে বাজারে ঢুকে এক পাহারাদারকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করা হয়। এভাবে আরো তিনজন পাহারাদারসহ বাজারের মানুষজনকে একই কায়দায় জিম্মি করা হয়। পরে ডাকাতদল সুমন জুয়েলার্স, মা জুয়েলার্স, মাতৃ জুয়েলার্স নামের তিনটি সোনার দোকান ও রণজিত কুণ্ডু, মজনু মিয়া, সিদ্দিক হোসেন ও শাহা প্রামাণিকের মনিহারি দোকানের তালা ভেঙে নগদ টাকা ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।


মন্তব্য