kalerkantho

ঈশ্বরদী

ভোটারশূন্য

আহমেদুল হক রানা, পাবনা   

৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



প্রায় ভোটারবিহীন অবস্থায় গতকাল সোমবার পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলার ৭৪টি কেন্দ্রের অধিকাংশ প্রিসাইডিং অফিসারকে অলস বসে থাকতে দেখা গেছে। সদ্যসমাপ্ত জেলা পরিষদ নির্বাচনে এ উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ায় এ আসটি শূন্য হয়।

ঈশ্বরদী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে দুজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগের মাহমুদা বেগম এবং স্বতন্ত্র জান্নাতুন ফেরদৌস রুণু। মোট ৪৯৪টি বুথে দুই লাখ ৩৯ হাজার ভোটারের ভোটাধিকার প্রয়োগের কথা ছিল। গতকাল সকাল থেকে কেন্দ্রগুলো ঘুরে প্রায় সব কটিতে ভোটারদের হতাশাজনক উপস্থিতি চোখে পড়ে।

ঈশ্বরদী পৌর এলাকার এস এম স্কুল অ্যান্ড কলেজের মহিলা কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার সিরাজুল হক জানান, তাঁর কেন্দ্রের আটটি বুথে মোট ভোটার দুই হাজার ৯৫৬ জন। দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত তাঁর কেন্দ্রে মাত্র সাতটি ভোট পড়েছে। একই কলেজের পুরুষ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার রবিউল আলম প্রায় একই সময় জানান, তাঁর কেন্দ্রের সাতটি বুথের মোট দুই হাজার ৮৬৬ ভোটের বিপরীতে মাত্র ৬৫ জন ভোট দিয়েছে। এ পর্যন্ত তাঁর কেন্দ্রে শতকরা ২ দশমিক ২৭ ভাগ ভোট পড়েছে।

অধিকাংশ কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর এজেন্ট ছাড়া প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কোনো এজেন্ট চোখে পড়েনি। অধিকাংশ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সকাল থেকে কলস প্রতীকের কোনো এজেন্ট কেন্দ্রে আসেনি।

এ বিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী জান্নাতুন ফেরদৌস রুণু অভিযোগ করেন, ‘বিভিন্ন কেন্দ্রে আমার এজেন্টরা যাতে কেন্দ্রে না যায়, সে জন্য নির্বাচনের আগে থেকেই হুমকি দেওয়া হয়েছে। নির্বাচনের দিন সকালে নারিচা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে আমার এজেন্টকে মারধর করে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর নেতাকর্মীরা বের করে দেয়। ভয়ে আতঙ্কে এজেন্টরা কেন্দ্রে আসতে পারেননি। ’

বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটারের উপস্থিতি হতাশাব্যঞ্জক হওয়ার কথা স্বীকার করে ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাকিল মাহমুদ বলেন, ‘নির্বাচনী প্রচারণা কম হওয়ায় ভোটারদের উপস্থিতি কম হয়েছে। ’

রিটার্নিং কর্মকর্তা ও পাবনা জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে ভোটারদের উপস্থিতি এত কম দেখে অবাক হয়েছি। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন হওয়ায় এবং প্রার্থীদের প্রচারণা কম হওয়ায় অধিকসংখ্যক ভোটার কেন্দ্রে আসেননি। ’


মন্তব্য