kalerkantho

১ম ► ক লা ম

৩৩ বছর পর

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি   

৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



কিশোরগঞ্জের ভাষাসৈনিক প্রয়াত মিছিরউদ্দীন আহমেদের গ্রামের বাড়িটি অবশেষে দখলমুক্ত হয়েছে। প্রায় ৩৩ বছর পর গ্রামবাসী ও পুলিশ প্রশাসনের সহায়তায় পরিবারের সদস্যরা গত শুক্রবার বাড়ির দখল বুঝে নিয়েছে।

মিছিরউদ্দীন আহমেদের মেজো ছেলে মিজানউদ্দিন টিটু জানান, তাঁদের পরিবারের সদস্যরা প্রায় ৩৩ বছর আগে গ্রাম ছেড়ে কিশোরগঞ্জ শহরে বসবাস করে আসছেন। একটি চক্র বাড়িটি দখলে নিতে নানা ষড়যন্ত্র ও হয়রানি করতে থাকে। বাড়ির মাঝ বরাবর বেড়া দিয়ে তারা স্থাপনাও করে ফেলে। বাড়ির কেয়ারটেকারকে তাড়াতে অত্যাচার চালায়। এমনকি বাড়ির সীমানা চিহ্নিত করতে গেলেও বাধা দেয়। নিরাপত্তাহীনতায় বাড়ির দখল নেওয়া সম্ভব হচ্ছিল না।

পুলিশ জানায়, সম্প্রতি পরিবারটি করিমগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করলে ঊর্ধ্বতনদের নির্দেশে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। পুলিশ ও গ্রামবাসীর সহায়তায় জমির সীমানা চিহ্নিত করে বাড়িটিতে সাইনবোর্ড টানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ইউপি মেম্বার আবু সিদ্দিক বাক্কার বলেন, ‘কোনো অন্যায় চাপে আমরা মাথা নত করিনি।

দলিল দেখে যার যা প্রাপ্ত বুঝিয়ে দিয়েছি। ’


মন্তব্য