kalerkantho


বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



শ্যামনগরে এক তরুণীকে বিয়ের প্রলোভনে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে প্রেমিকসহ তিন বন্ধু মিলে রাতভর ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পানের সঙ্গে চেতনানাশক মিশিয়ে ধর্ষণ শেষে ভোরে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় ধানক্ষেতের আইলে ফেলে রাখা হয় ওই তরুণীকে।

ভোরে গ্রামবাসী ওই তরুণীকে উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করলেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি বলে ধর্ষিতা ও তাঁর পরিবারের অভিযোগ। গত শুক্রবার রাতে শ্যামনগর সুন্দরবনসংলগ্ন বুড়িগোয়ালিনি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শনিবার ভোর ৫টার দিকে ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে গ্রামবাসী।

ওই তরুণী জানান, চাঁদনীমুখী গ্রামের মনিরুল ইসলামের ছেলে আব্দুল্যা আল মামুনের সঙ্গে তাঁর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত শুক্রবার রাতে মামুন ও তার দুই বন্ধু মোবাইল ফোনে তাঁকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে সবার অজান্তে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরে গভীর রাতে বাড়ির পাশের ভেড়িবাঁধের ওপর মামুন তাঁকে ধর্ষণ করে। এ সময় মামুনের বন্ধুরা কিছুটা দূরে নৌকার মধ্যে অবস্থান করছিল।

এ সময় কান্নাকাটি করলে মামুন তাঁকে নিয়ে নৌকায় উঠে বিস্কুট ও পান খেতে দেয়। পান খাওয়ার পর তিনি আর কিছু বলতে পারেন না।

গতকাল ভোরে গ্রামবাসী তাঁকে উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করার পর জানতে পারেন তাঁকে ধান ক্ষেতের আইল থেকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। ওই তরুণী তাঁর শারীরিক অবস্থা দেখে জানান, তাঁকে তাঁর প্রেমিকসহ তিনজন মিলে সারা রাত ধর্ষণ করেছে। তিনি এর বিচার দাবি করেন।

বুড়িগোয়ালিনি গ্রামের নুরুজ্জামান, আদম আলী, নজরুল ইসলাম, আব্দুল হক জানান, তাঁরা শনিবার ফজরের নামাজ শেষে মাঠে যাওয়ার পথে বুড়িগোয়ালিনি ফরেস্ট জামে মসজিদের ইমাম রফিকুল হুজুরের ধান ক্ষেতের আইলের ওপর এক তরুণীকে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে তাঁরা তাঁকে উদ্ধার করে বুড়িগোয়ালিনি নৌ পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য (৬ নম্বর ওয়ার্ড) আব্দুর রহিম জানান, ওই তরুণীর সঙ্গে মামুনের ভালোবাসা আছে এটা সবাই জানে। শুক্রবার রাতে কী হয়েছে তা জানা নেই। তিনি ওই তরুণীকে চেয়ারম্যানের কাছে অভিযোগ দিতে বলেছেন।

গাবুরা ইউপি চেয়ারম্যান আলী আজম টিটু জানান, মেয়েটি আব্দুল্লা আল মামুনের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তিনি বিষয়টি আইনিভাবেই দেখবেন বলে জানান।

অভিযুক্ত আব্দুল্লা আল মামুন জানান, আগামী সোমবার আমার বিয়ের দিন ধার্য হয়েছে। মেয়েটি আমার মানসম্মান নষ্ট করার জন্য এসব করছে।

শ্যামনগর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য