kalerkantho


গোপালগঞ্জে গায়ে আগুন দিয়ে গৃহবধূর ‘আত্মহত্যা’

মামলার পর পালিয়েছে স্বামী-শ্বশুর

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি   

১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



গোপালগঞ্জে সাথী বিশ্বাস (১৮) নামের এক গৃহবধূ নিজ গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। গত সোমবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার সাতপাড় নবপল্লী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে সাথীর বাবা তাঁর (সাথী) স্বামী ও শ্বশুরের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা করেছেন।

সাথী বিশ্বাস সদর উপজেলার বৌলতলী গ্রামের শ্যামল বিশ্বাসের মেয়ে ও সাতপাড় নবপল্লী গ্রামের সুশান্ত বিশ্বাসের ছেলে গোবিন্দ বিশ্বাসের স্ত্রী।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, ছয় মাস আগে সাথীর সঙ্গে গোবিন্দর বিয়ে হয়। বিয়ের পর সাথীর সঙ্গে এক যুবকের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ নিয়ে গোবিন্দের সঙ্গে পারিবারিক কলহ শুরু হয়। এর জেরে সাথী গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছিলেন। সর্বশেষ গত সোমবার সন্ধ্যায় তিনি শ্বশুরবাড়িতে নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। এ সময় বাড়িতে অন্য কেউ ছিল না। পরে এলাকাবাসী তাঁকে মারাত্মক আহত অবস্থায় গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গভীর রাতে তাঁর মৃত্যু হয়। সাথীর বাবা অভিযোগ করেছেন, পারিবারিক কলহের জেরে সাথীকে তাঁর স্বামী-শ্বশুর বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়ার কথা বলতেন। এ জন্য সাথী আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

গোপালগঞ্জ সদর থানার ওসি মো. সেলিম রেজা বলেন, লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। মামলার আসামিরা পলাতক। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


মন্তব্য