kalerkantho


মঠবাড়িয়া

ছেলেকে মারধরের বিচার চেয়ে মার খেলেন মা

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, পিরোজপুর   

১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ছেলেকে মারধরের বিচার চাইতে গেলে মাকে এক প্রতিবেশী পিটিয়ে শ্লীলতাহানি করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। আহত মা রিনা বেগম (৩৫) ও ছেলে রাইফুল (৮) তিন দিন ধরে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। রিনা বেগম উপজেলার পূর্ব ফুলঝুড়ি গ্রামের মালয়েশিয়াপ্রবাসী মাহাবুব আকনের স্ত্রী।

সূত্র জানায়, রাইফুল মঠবাড়িয়ার তেঁতুলবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র। গত রবিবার রাইফুলের সঙ্গে প্রতিবেশী আল-আমীন শিকদারের ছেলে সহপাঠী যাবেরের (৮) কোনো বিষয়ে শ্রেণিকক্ষে বাগিবতণ্ডা হয়। এ সময় যাবের রাইফুলকে মারধর করে। এ নিয়ে ওই দিন দুপুরে রিনা বেগম আল-আমীনের কাছে নালিশ জানান। এতে আল-আমীন ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠি দিয়ে রিনা বেগমকে এলোপাতাড়ি পেটাতে থাকেন। একপর্যায়ে তিন সন্তানের জননী রিনা বেগম মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

রিনা বেগম বলেন, ‘দূর সম্পর্কের দেবর ও প্রতিবেশী আল-আমীন আমার চুল ধরে টেনেহিঁচড়ে পরিধানের কাপড় ছিঁড়ে ফেলে। এ সময় আমি জ্ঞান হারাই।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. হারুন-অর-রশিদ তালুকদার বলেন, ‘এ হামলা অমানবিক। ’ অভিযোগের বিষয়ে আল-আমীনের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য