kalerkantho


সাংবাদিক শিমুল হত্যা

মেয়র ও তাঁর ভাই দ্বিতীয় দফা রিমান্ডে

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি   

১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



মেয়র ও তাঁর ভাই দ্বিতীয় দফা রিমান্ডে

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যা মামলায় আওয়ামী লীগের সাময়িক বহিষ্কৃত নেতা মেয়র হালিমুল হক মিরু ও তাঁর ভাই হাসিবুল হক মিন্টুর দ্বিতীয় দফা রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার শুনানি শেষে আদালত এ আবেদন মঞ্জুর করেন।

এর আগে একই মামলায় প্রথম দফায় তাঁদের পাঁচ দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শাহজাদপুর থানার পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম জানান, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে মেয়র মিরু ও তাঁর ভাই মিন্টুকে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করে সিরাজগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নজরুল ইসলামের আদালতে হাজির করা হলে বিচারক শুনানি শেষে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত পিপি আবুল কাশেম জানান, শাহজাদপুর উপজেলা আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুল হক সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য ঢাকায় গেছেন। এ কারণে সিরাজগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নজরুল ইসলামের আদালতে হালিমুল হক মিরু ও তাঁর ভাই হাসিবুল হক মিন্টুর রিমান্ড শুনানি হয়। এ জন্য কারাগার থেকে তাঁদের শাহজাদপুর আদালতের পরিবর্তে সিরাজগঞ্জ আদালতে নেওয়া হবে।

গত ২ ফেব্রুয়ারি ছাত্রলীগ নেতা বিজয় মাহমুদকে মেয়রের বাড়িতে তুলে নিয়ে হাত-পা ভেঙে দেওয়া হয়। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ও বিজয়ের স্বজনরা মেয়রের বাসার সামনে মিছিল নিয়ে গিয়ে ইটপাটকেল ছোড়ে। এ সময় মেয়র মিরু ও তাঁর ভাই মিন্টু শটগান দিয়ে গুলি ছুড়লে কর্তব্যরত সমকালের সাংবাদিক আবদুল হাকিম শিমুলের চোখের ভেতর দিয়ে গুলি মাথায় ঢুকে পড়ে। গুরুতর অবস্থায় প্রথমে তাঁকে বগুড়া নেওয়া হয়।

সেখান থেকে পরদিন ঢাকা নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়ে সারা দেশের গণমাধ্যমকর্মীরা।

এ ঘটনায় নিহত শিমুলের স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম বাদী হয়ে পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরুকে প্রধান আসামি করে ১৮ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতপরিচয় আরো ২০-২৫ জনের নামে মামলা করেন। তা ছাড়া বিজয় মাহমুদের চাচা এরশাদ আলী একটি মামলা করেন। দুটি মামলায় পুলিশ এখন পর্যন্ত ১২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। সবাই জেলা কারাগারে রয়েছেন।

 


মন্তব্য