kalerkantho


কোটালীপাড়ায় যৌতুক দিতে অস্বীকার

নববধূকে নির্যাতন

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



গোপালগঞ্জে বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক আনতে অস্বীকার করায় এক নববধূকে মারধর করা হয়েছে। গত শনিবার জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার হরিণাহাটি গ্রামে স্বামী ও তাঁর পরিবারের লোকজন এ ঘটনা ঘটায়।

আহত ওই নববধূকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি হরিণাহাটি গ্রামের বাদশা কাজীর মেয়ে সাবিনা খানমকে একই গ্রামের শহীদ তালুকদারের ছেলে রনি তালুকদার ভালোবেসে বিয়ে করেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নববধূ সাবিনা খানম সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিয়ের পরদিন থেকেই আমার বাবার কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা আনার জন্য চাপ দেয় স্বামী রনি ও তার পরিবারের লোকজন। গত শনিবার সকালেও টাকা আনার জন্য চাপ দিলে আমি বাবার কাছ থেকে টাকা এনে দিতে অস্বীকার করি। তখন রনি ও তার পরিবারের লোকজন আমাকে মারধর করে বাড়িতে ফেলে রাখে। তখন তারা বলে যে এ ঘটনায় আইনি সহায়তা নিলে আমাকে তালাক দেওয়া হবে। ’

সাবিনার বাবা বাদশা কাজী বলেন, ‘বিয়ের পরদিনই রনি আমাদের নিকট পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় রনি ও তার পরিবারের লোকজন আমার মেয়েকে শারীরিক নির্যাতন করে। খবর পেয়ে গিয়ে মেয়েকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি।

কোটালীপাড়া থানার ওসি মো. কামরুল ফারুক এ ব্যাপারে বলেন, মেয়েটির বাবা ঘটনাটি মৌখিক জানিয়েছেন। তবে এখন পর্যন্ত লিখিত অভিযোগ দেননি। ঘটনা জানতে পেরে অভিযুক্ত রনির বাড়ি পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তবে বাড়িতে কাউকে পাওয়া যায়নি।

 


মন্তব্য