kalerkantho


শ্রীপুরে তরুণীকে গণধর্ষণ

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, গাজীপুর   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার ডালেশহরে সংরক্ষিত গজারিবনে গত শনিবার সন্ধ্যায় এক তরুণীকে (১৮) গণধর্ষণ করা হয়েছে।

তরুণীটি পাশের ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার লংগাইর ইউনিয়নের দরিদ্র কৃষকের মেয়ে। অভিযুক্তরা হলো ডালেশহর গ্রামের হাসেম খাঁর ছেলে সেলিম, গেনু মিয়ার ছেলে রাশিদুল ইসলাম ও মৃত লাল মিয়ার ছেলে রফিকুল ইসলাম।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় দেড় মাস আগে মুঠোফোনে তরুণীর সঙ্গে সেলিমের পরিচয় ও প্রেম হয়েছিল। পরে তরুণীর দারিদ্র্যের কথা জেনে পোশাক কারখানায় বেশি বেতনে চাকরির প্রলোভন দেখায় যুবকটি। মেয়েটি প্রতিবেশী এক বান্ধবীকে নিয়ে গত শনিবার দুপুরে শ্রীপুর রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় যান। সেখান থেকে তাঁদের গজারিবনের পাশে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় সন্দেহ হলে এক তরুণী পালিয়ে যান। আরেকজনকে তিনজন নির্যাতন চালায়। একপর্যায়ে চেতনা হারায় মেয়েটি।

স্থানীয় লোকজন জানায়, ওই সময় পাশের সড়ক দিয়ে দুই পথচারী যাচ্ছিল।

তাদের দেখে ঝোপের ভেতর লুকিয়ে থাকা তরুণী ‘বাঁচাও’ বলে চিৎকার করে। পথচারীরা গ্রামবাসীকে ডেকে বন ঘেরাও করে তিনজনকে আটক করে।

ডালেশহর গ্রামের যুবলীগকর্মী মো. উসমান জানান, আটক ও উদ্ধার হওয়া পাঁচজনকে বরমী ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য হারুন-অর রশিদের জিম্মায় দেওয়া হয়। সেখানে আপস-মীমাংসার সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালায় তিন যুবক।

এক তরুণীর মা অভিযোগ করেন, গতকাল সকাল থেকে তাঁকে ফোন করে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে সেলিম।

শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান বলেন, ‘প্রয়োজনে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হবে। ’


মন্তব্য