kalerkantho


বাগেরহাটে ৩৫০ হাঁস হত্যা

বাগেরহাট প্রতিনিধি   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বাগেরহাটে এক খামারির ৩৫০টি হাঁস মেরে ফেলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলার রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের কুমারখালী গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। তবে কাজটি কে বা কারা করেছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ওই গ্রামের খামারি হারুন হাওলাদার জানান, বিভিন্ন ব্যক্তি ও বেসরকারি সংস্থার কাছ থেকে ঋণ নিয়ে এক লাখ ৩০ হাজার টাকা ব্যয় করে এক বছর আগে কুমারখালী গ্রামে ওই হাঁসের খামারটি করেন। খামারে ৪০০ হাঁস রয়েছে। এর মধ্যে প্রায় ২৫০টি হাঁস এখন ডিম দিচ্ছে। প্রতিদিন হাঁসগুলো পাশের খালবিলে চরানো হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হাঁসগুলো বিল থেকে খামারে ওঠানোর পর কিছুক্ষণের মধ্যে ছটফট করে ৩৫০টি হাঁস মারা গেছে।

খামারি হারুনের ধারণা, দুর্বৃত্তরা বিষমিশ্রিত ধান ওই খামারে ছড়িয়ে রেখেছিল। হাঁসগুলো ওই ধান খেয়ে মারা গেছে। যারা তাঁর হাঁসগুলো মেরে ফেলেছে, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির পাশাপাশি আর্থিক ক্ষতিপূরণ দাবি করেন তিনি।

মোরেলগঞ্জ উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. পীযুষ কান্তি ঘোষ জানান, হাঁসের ময়নাতদন্তসহ বিভিন্ন নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হবে। তবে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, বিষাক্ত খাবার খেয়ে হাঁসগুলোর মৃত্যু হয়েছে।

মোরেলগঞ্জ থানার ওসি রাশেদুল আলম জানান, হাঁসের মৃত্যুর ঘটনায় ওই বৃদ্ধ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। তদন্তের জন্য ওই গ্রামে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। খামার থেকে উদ্ধার করা ধান ও নমুনা পরীক্ষা করে দেখা হবে কিভাবে ওই হাঁসগুলোর মৃত্যু হয়েছে।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ্বাস জানান, তদন্ত করে দুর্বৃত্তদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে।


মন্তব্য