kalerkantho


দিনাজপুরে সম্মেলনে বিক্ষোভ, পটকা

বিরোধীদের থাপ্পড় মারার কথা বললেন মন্ত্রী

দিনাজপুর প্রতিনিধি   

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



প্রায় ২২ বছর পর দিনাজপুর মহিলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন হয়েছে গতকাল সোমবার। বাইরে বিক্ষোভ মিছিল ও ছাদে পটকার বিস্ফোরণ ঘটায় বিরোধীরা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার। অনুষ্ঠান শেষে তাঁকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ করে বিরোধীরা। তর্কে লিপ্ত হলে ক্ষিপ্ত মন্ত্রী প্রতিউত্তরে বলেন, ‘আমার কাছে মাস্তানি করতে এসেছ বেটা, কত ছাত্রলীগকে থাপ্পড়ে ঠিক করে দিয়েছি। ’

স্থানীয় সূত্র জানায়, প্রচারণা ছাড়াই সম্মেলন আয়োজন করায় অনুষ্ঠানের শুরুতে ব্যানার ছিঁড়ে সভামঞ্চ তছনছ করে ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। তড়িঘড়ি করে পুনরায় ডিজিটাল ব্যানার বানানো হলেও বিরোধীদের আপত্তির মুখে তা ব্যবহার করা যায়নি। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রীর উপস্থিতিতে কার্যক্রম চলার সময় সভামঞ্চের ছাদে দুই দফায় পটকার বিস্ফোরণ ঘটায় বিরোধীরা। জাতীয় সংসদের হুইপ স্থানীয় সংসদ সদস্য ইকবালুর রহিমকে আমন্ত্রণ জানানোয় বিক্ষোভ করে নাখোশরা। সম্মেলন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভসহ অনুষ্ঠানস্থলের সামনে সমাবেশ করে তারা। দুপুরে প্রথম দফার অধিবেশন মুলতবি ঘোষণা করা হলেও দ্বিতীয় দফায় আর অধিবেশন বসেনি।

অন্যদিকে সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন না কমিটির সভানেত্রী ও সংরক্ষিত আসনের সাবেক সংসদ সদস্য সুলতানা বুলবুল এবং সাধারণ সম্পাদিকা তারিকুন বেগম লাবুনসহ অনুসারীরা।

তবে সম্মেলনের ঘটনাকে হালকাভাবে নিয়েছেন মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার। তিনি বলেন, ‘বড় সংগঠনে ছোটখাটো ঘটনা ঘটেই থাকে। সংখ্যাগুরুর দিকে চলবে সাংগঠনিক কাজ। ’

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী লুলু আফসার। বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য মনোরঞ্জনশীল গোপাল, কেন্দ্রীয় মহিলা নেত্রী ইয়াসমিন হোসেন, বনশ্রী স্মৃতি কোণা বিশ্বাস ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী প্রমুখ।

পুরনো কমিটি বাতিল ঘোষণাসহ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদিকা পদে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নাম সংগ্রহ করা হলেও উদ্ভূত পরিস্থিতে কমিটি ঘোষণা করা হয়নি।


মন্তব্য