kalerkantho


বাসচাপায় ছাত্রী আহতের ঘটনার জের

বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসা ঘেরাও

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি   

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসা ঘেরাও

বাসচাপায় ছাত্রী আহত হওয়ার প্রতিবাদে গতকাল গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সামনে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। এর আগে গোপালগঞ্জ-টুঙ্গিপাড়া সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করা হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

গোপালগঞ্জে বাসচাপায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী আহত হওয়ার জেরে উপাচার্যের (ভিসি) বাসভবন ঘেরাও, সড়ক অবরোধ ও ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা। সোমবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত ক্লাস বর্জন করে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা এসব কর্মসূচি পালন করে।

সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে গোপালগঞ্জ-টুঙ্গিপাড়া সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ করে। খবর পেয়ে পুলিশ সকাল ১১টার দিকে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করে সড়ক থেকে অবরোধ তুলে দেয়। পরে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সামনে পাঁচ দফা দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও অবস্থান ধর্মঘট পালন করে। এ সময় তারা আহত শিক্ষার্থী সুপর্ণা মজুমদারের চিকিৎসার দায়িত্ব নেওয়া, বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরির ব্যবস্থা, পরিবারের ভরণ-পোষণের ব্যবস্থা, বাসচালক শরীফুল ইসলামকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারাদেশ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি ফটকের সামনে গতিরোধ নির্মাণের দাবি জানানো হয়।

পরে দুপুরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা একটি মিছিল নিয়ে উপাচার্য ড. খোন্দকার নাসির উদ্দিনের বাসভবনে যায়। সেখানে তারা বাসভবন ঘেরাও করে বিভিন্ন স্লোগান দেয়। পরে ড. খোন্দকার নাসির উদ্দিনের বাসভবনে ছাত্রনেতাদের সঙ্গে এক সমঝোতা বৈঠক হয়। বৈঠকে উপাচার্য ছাত্রদের সব দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলে ছাত্ররা আন্দোলন থেকে সরে আসে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. নুরউদ্দিন আহমেদ জানান, ছাত্রছাত্রীদের একটি অংশ গত রবি ও সোমবার ক্লাস করেনি।

তারা ক্লাস বর্জন করে আন্দোলনে নেমেছে।

গত রবিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়েরই একটি বাসের চাপায় সমাজ বিজ্ঞান (অনার্স) বিভাগের প্রথম বর্ষের  ছাত্রী সুপর্ণা মজুমদার (১৯) গুরুতর আহত হন। এ ঘটনার প্রতিবাদে ও বাসচালকের শাস্তির দাবিতে গতকালও আন্দোলন করে শিক্ষার্থীরা। আহত ওই ছাত্রীকে ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ-কোটালীপাড়া সড়কে তিন দিন ধরে বাস চলাচল বন্ধ এদিকে সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র নিহতের জের ধরে তিন দিন ধরে গোপালগঞ্জ-কোটালীপাড়া সড়কে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। লোকাল বাস ও ঢাকাসহ অন্যান্য স্থানে সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ থাকায় ওই সড়কে চলাচলকারী যাত্রীরা বিপাকে পড়েছে।


মন্তব্য