kalerkantho


জামালপুরে খালে দর্জির লাশ

চার স্থানে আরো দুই মরদেহ, দুই খুন

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



জামালপুরে খাল থেকে নিখোঁজ দর্জির বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। কক্সবাজারে তরুণী ও চুয়াডাঙ্গায় শ্রমিকের মরদেহ পাওয়া গেছে। পাবনার আতাইকুলায় দিনমজুরকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। ফরিদপুরের নগরকান্দায় মামাতো ভাইয়ের হাতে ফুফাতো ভাই খুন হয়েছেন।

জামালপুর : সদর উপজেলায় নিখোঁজের পাঁচ দিন পর খালে পাওয়া গেছে দর্জি শফিকুল ইসলামের বস্তাবন্দি লাশ। খবর পেয়ে গতকাল রবিবার সকালে উপজেলার দিগপাইতের বংশাই খাল থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় তাঁর স্ত্রী রহিমা বেগম বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা করেছেন। শফিকুল চানপুর গ্রামের মৃত চান মিয়ার ছেলে। গত মঙ্গলবার রাতে দিগপাইত বাসস্ট্যান্ড বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে তিনি নিখোঁজ হয়েছিলেন।

কক্সবাজার : শহরের কলাতলীর ‘এআর গেস্ট হাউস’-এর পানির ট্যাংক থেকে গতকাল রবিবার বিকেলে তরুণীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাঁর গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

তাঁকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশের ধারণা। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গেস্ট হাউসটির ম্যানেজার কাজী মোশারফ হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, রেজিস্টার খাতায় তরুণীর নাম তমা ও স্বামীর নাম আকাশ বলে উল্লেখ রয়েছে। ঠিকানা দেওয়া হয়েছে কুমিল্লা। গত মঙ্গলবার স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে তাঁরা গেস্ট হাউসটিতে ওঠেন। ঠিকানাটি ভুয়া বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পাবনা : আতাইকুলা থানায় গত শনিবার রাতে দিনমজুর জহুরুল ইসলামকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে পরদিন রবিবার বিকেলে কৃষ্ণপুর গ্রামের গমক্ষেত থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। জহুরুল একই গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে। আতাইকুলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক জানান, জহুরুলের ঘাড়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। কারা, কী কারণে তাঁকে হত্যা করেছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

চুয়াডাঙ্গা : শহরের সাদেক আলী মল্লিকপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে গত শনিবার রাতে পরিবহন শ্রমিক রাজা হোসেনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তারা ঘটনাস্থল থেকে বালিশসহ আরো কিছু আলামত সংগ্রহ করেছে। রাজার স্ত্রী জেসমিন খাতুনের দাবি, তাঁর স্বামী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গতকাল রবিবার দুপুরে জেসমিন খাতুন, তাঁর মা জবেদা খাতুন ও বোন আক্তারুন নাহারকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

ফরিদপুর : নগরকান্দা উপজেলায় গত শনিবার মামাতো ভাইয়ের হাতে ফুফাতো ভাই ইকবাল হোসেন খুন হয়েছেন। ইকবাল উপজেলার পাঁচকাইচাইল গ্রামের কৃষক আবু শেখের ছেলে। ঘটনার পর থেকে ঘাতক হায়াত আলী পলাতক। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, পাঁচকাইচাইল গ্রামে বাড়ির পাশের পুকুর থেকে কচুরিপানা তোলাকে কেন্দ্র করে শনিবার দুপুরে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে হায়াত আলী চাপাতি দিয়ে তার ফুফা আবু শেখ ও ফুফাতো ভাই ইকবাল হোসেনকে এলোপাতাড়ি কোপায়।


মন্তব্য