kalerkantho

১ম কলাম

শ্রমিক অসন্তোষ

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



আশুলিয়ায় বিদেশি বিনিয়োগের একটি তৈরি পোশাক কারখানার কয়েকজন শ্রমিককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। শ্রমিকদের অভিযোগ, এক নারী সহকর্মীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় শনিবার ঢাকা রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকার (ডিইপিজেড) ডং বাং ফ্যাসিলিটিজ (বিডি) লিমিটেড কারখানায় ১৬৫ জন শ্রমিককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে শিল্প পুলিশ-১, সাভার-আশুলিয়া জোনের পরিচালক পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন, বরখাস্ক শ্রমিকের সংখ্যা ৪৬। শ্রমিকদের অভিযোগ, শনিবার সকালে তারা কারখানার গেটে আসার পর নিরাপত্তাকর্মীরা ১৬৫ জন শ্রমিককে ভেতরে ঢুকতে না দিয়ে সাময়িক বরখাস্তের চিঠি ধরিয়ে দেয়। এর আগে গত ২৬ জানুয়ারি কারখানার সহকারী উৎপাদন ব্যবস্থাপক নুরুল ইসলাম টিপু একজন নারী সুয়িং অপারেটরকে যৌন হয়রানি করেন। পরদিন ওই নারী শ্রমিক অভিযুক্ত কর্মকর্তার শাস্তি দাবি করলে কারখানা কর্তৃপক্ষ তাঁকে বরখাস্ত করে। শ্রমিকদের মধ্যে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে তারা ৭ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কর্মবিরতি পালন করে। তবে কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. রাকিবুল ইসলাম ওই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আর্থিক সংকটের কারণে তাঁরা শ্রমিকদের সময়মতো বেতন দিতে না পারায় শ্রমিকরা সহকারী উৎপাদন ব্যবস্থাপক নুরুল ইসলামকে মারধর এবং কারখানার আসবাব ভাঙচুর করে। কর্মবিরতি পালনকালে যেসব শ্রমিক কারখায় ভাঙচুর করেছিল তাদের ৫০ জনকে ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা ফুটেজের মাধ্যমে শনাক্ত করে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। তিনি বলেন, শ্রমিকদের দাবি অনুযায়ী তাঁরা ওই সহকারী উৎপাদন ব্যবস্থাপককে বরখাস্ত করেছেন। তবে কী অভিযোগে তাঁকে বরখাস্ত করা হয়েছে সে ব্যাপারে তিনি কিছু বলেননি।

আশুলিয়া থানার ওসি মো. মহসিনুল কাদির বলেন, মারধরের অভিযোগ এনে কারখানাটির সহকারী উৎপাদন ব্যবস্থাপক (এপিএম) নুরুল ইসলাম ১৮ জন শ্রমিকের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতপরিচয় আরো ৫০ শ্রমিকের নামে মামলা করেন।


মন্তব্য