kalerkantho


ধরা পড়ল ১১ সাজা পেল ৭

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



গ্রামের চায়ের দোকানে গভীর রাতে জুয়া খেলছিল ওরা ১১ জন। পুলিশ তাদের ধরে নিয়ে যায় থানায়।

রাতভর সবাই থানাহাজতে একসঙ্গে থাকলেও শনিবার সকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হয় সাতজনকে। আর তাদের সাজা দেওয়া হয় ২৮ দিন করে। বাকি চারজনকে মাসোয়ারা নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। ময়মনসিংহের নান্দাইল থানায় ঘটেছে এ ঘটনা। ভ্রাম্যামাণ আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) তামিম আল ইয়ামীন। তিনি জানান, জুয়া নিয়ন্ত্রণ আইনে সাতজনকে ২৮ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, উপজেলার শেরপুর ইউনিয়নের সংগ্রামকেলি বাজারে জুয়ার আসর জমায় স্থানীয় কয়েকজন। এ খবর পেয়ে একদল পুলিশ শুক্রবার গভীর রাতে ওই স্থানে যায়। পরে অভিযান চালিয়ে ১১ জুয়াড়িকে হাতেনাতে ধরা হয়।

পরে আটক জুয়াড়িদের স্বীকারোক্তিতে সবাইকে থানাহাজতে রাখা হয়। শনিবার সকালে চার জুয়াড়িকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। জানা যায়, ৪০ হাজার টাকা রফায় ওই চারজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

জানা যায়, ভ্রাম্যমাণ আদালতে ২৮ দিন সাজা পাওয়াদের একজন নান্দাইলের শেরপুর ইউনিয়নের সংগ্রামকেলি গ্রামের হাবিবুল্লাহর ছেলে মো. সাইদুর। তিনি বলেন, ‘গত শুক্রবার রাতে সংগ্রামকেলি বাজারে হুমায়ুনের চায়ের দোকানে বসে ম্যারেজ (তাস) খেলছিলাম।


মন্তব্য