kalerkantho


পুলিশকে ঘুষখোর বলায় অটোচালককে পিটুনি

শেরপুর প্রতিনিধি   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



শেরপুরে ঘুষখোর বলায় ব্যাটারিচালিত এক অটোরিকশার চালককে পিটিয়েছেন এক ট্রাফিক পুলিশ। শুধু তা-ই নয়, পিটিয়ে আহত করে তাঁকে জেলা হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুর ১টার দিকে শহরের নিউ মার্কেট মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শেরপুর পুলিশ লাইনস মাঠে শনিবার বার্ষিক পুলিশ সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এ জন্য সকাল থেকে শহরের রাস্তাঘাটে যানজট নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ব্যাপক তত্পর ছিল। এর মধ্যে দুপুর ১টার দিকে নিউ মার্কেট মোড়ে কনস্টেবল শফিক রাস্তার মধ্যে অটোরিকশা থামিয়ে বস্তা ওঠানোর কারণে চালককে ধমকান। এ সময় চালক ফারুক হোসেন বলে ওঠেন, ‘আমরা তো এ জন্য পুলিশকে টাকা দিই। ’

এ কথা শুনে ক্ষিপ্ত হন কনস্টেবল। তিনি চালককে চড়-থাপড় এবং হাতের লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকেন। অটোরিকশার সামনে ও পেছনের

কাচ লাঠির আঘাতে ভেঙে যায়। চালক রক্তাক্ত হন।

পরে আরেকজন কনস্টেবল দিয়ে জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। চিকিৎসার পর পুলিশ তাঁকে হাসপাতাল থেকে নিয়ে যায় বলে জরুরি বিভাগে কর্মরতরা জানান।

জেলা হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ফারুক হোসেন সদর উপজেলার পাকুরিয়া খামারপাড়া গ্রামের আব্দুল কাদিরের ছেলে।

অভিযুক্ত ট্রাফিক কনস্টেবল শফিক বলেন, ‘চালক ট্রাফিক আইন না মেনে পুলিশকে ঘুষখোর বলে। আমার লাঠি নিয়ে টানাটানি করায় তাকে আমি দু-একটি চড়-থাপড় দিয়েছি। ’

শেরপুর ট্রাফিক পরিদর্শক (টিআই) তারিকুল ইসলাম বলেন, ‘যত অন্যায় করুক, চালককে পেটানো বা তার গাড়ি ভাঙচুর করা ঠিক হয়নি।

তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ ছিল। বিষয়টি আমি দেখব। ’


মন্তব্য