kalerkantho


নারায়ণগঞ্জে শ্রমিকদের মানববন্ধন, হুঁশিয়ারি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জে শ্রমিকদের

মানববন্ধন, হুঁশিয়ারি

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার আটিপাড়া এলাকার একটি রপ্তানিমুখী কারখানা খুলে দেওয়ার দাবিতে গতকাল মানববন্ধন করে শ্রমিকরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার আটিপাড়া এলাকার একটি রপ্তানিমুখী কারখানা খুলে দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেছে শ্রমিকরা। অন্যথায় শ্রমিকরা চার মাসের বকেয়া ভাতা, নাইট বিল, লে-অফ বেনিফিটসহ সব পাওনা পরিশোধের দাবি জানিয়েছে। অবিলম্বে এ দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলনেরও হুঁশিয়ারি দেয় শ্রমিকরা।

ক্লাক্সটন অ্যাপারেলস অ্যান্ড টেক্সটাইল লিমিটেড নামের কারখানার কয়েক শ শ্রমিক গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে ওই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। এ সময় কারখানার শ্রমিক মো. শরিফ জানান, কারখানায় কাজ না থাকার অজুহাতে গত ৬ অক্টোবর কর্তৃপক্ষ নোটিশের মাধ্যমে কারখানা লে-অফ ঘোষণা করে। তখনো শ্রমিকরা কারখানায় কাজ করছিল। এ সময় শ্রমিকদের সব পাওনা পরিশোধ করে কারখানা খুলে দেওয়ার কথা বলার পর গত চার মাসেও কারখানা খুলে দেওয়া হয়নি। এমনকি শ্রমিকদের পাওনাও পরিশোধ করছে না মালিকপক্ষ। কারখানার ৬৫৮ জন শ্রমিকের একই অবস্থা।

শ্রমিকদের মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বাংলাদেশ অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল শ্রমিক ফেডারেশনের সিনিয়র সংগঠক শামীমা আক্তার বলেন, ‘আমরা লে-অফ ভাতাদি পরিশোধ করার জন্য কলকারখানা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর, শ্রম পরিদপ্তর, ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ, বিজিএমইসহ বিভিন্ন দপ্তরে চিঠি পাঠালেও তারা কোনো পদক্ষেপ নেননি। যদি কারখানা খোলা না হয়, তাহলে শ্রম আইন অনুযায়ী শ্রমিকের দাবি পরিশোধ করে দেওয়া হোক।

অন্যথায় আমরা কঠোর কর্মসূচি গ্রহণ করব। ’

ক্লাক্সটন অ্যাপারেলস অ্যান্ড টেক্সটাইল লিমিটেড শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি কবির হোসেনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল শ্রমিক ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি মো. শাহজাহান, সাধারণ সম্পাদক স্বপন পাণ্ডে, মুন্নি আক্তার, মহিউদ্দীন প্রমুখ। এ ছাড়া কয়েক শ শ্রমিক উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর নারায়ণগঞ্জ জোনের উপমহাপরিদর্শক শেখ আসাদুজ্জামান বলেন, ‘ছয় মাস ধরে গ্যাসের সমস্যা ছিল। নানা সংকটের কারণে কারখানাটি শ্রমিকদের বেতন পরিশোধ করতে পারছিল না বলে লে-অফ ঘোষণা করে। তারপর শ্রমিক বা মালিকপক্ষ থেকে আর কিছু জানানো হয়নি। ’

তিনি আরো বলেন, ‘এ বিষয়ে কেউ লিখিত অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মালিকপক্ষকে বেতন পরিশোধ করতে বাধ্য করা হবে। অন্যথায় বেতন পরিশোধে মামলা করা যেতে পারে। ’

সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে ভাস্কর্য না সরালে আন্দোলন

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের জ্যেষ্ঠ নায়েবে আমির সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম বলেছেন, সরকার তার বিদেশি প্রভুদের খুশি করতে হিন্দু রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য সুপ্রিম কোর্টের সামনে গ্রিক দেবীর ভাস্কর্য স্থাপন করেছে। এটি অপসারণ করা না হলে সরকার পতনে আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ফয়জুল করীম। তিনি বলেন, জনগণের ন্যায্য অধিকার, মৌলিক অধিকার ও ধর্মীয় স্বাধীনতা ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ স্বাধীন করা হয়েছিল। কিন্তু এখনো মানুষ তাদের স্বাধীনতার স্বাদ নিতে পারেনি। মানুষের বাক ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নেই। নেই আইনের শাসন। চারদিকে আহাজারি, আর্তনাদ আর কান্না। এ অবস্থা ইসলামী মূল্যবোধ না থাকার কারণে।

সংগঠনের নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি মুহাম্মাদ ওমর ফারুকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইমদাদুল হকের সঞ্চালনায় সম্মেলনে আরো বক্তব্য দেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ যুগ্ম মহাসচিব মাহবুবুর রহমান, শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির মুহতারাম সভাপতি জি এম রুহুল আমীন।

সম্মেলনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি মুফতি মাসুম বিল্লাহ, সেক্রেটারি মুহাম্মদ সুলতান মাহমুদ, ছাত্র ও যুববিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মদ আব্দুল হান্নান, মুফতি ওমর ফারুক সন্দ্বীপী, মুফতি আবু মুসা নেছারী, ইশা ছাত্র আন্দোলন নারায়ণগঞ্জের সহসভাপতি মু. মামুনুর রশীদ প্রমুখ।  


মন্তব্য