kalerkantho


আখাউড়ায় যুবকের পোড়া লাশ

হবিগঞ্জ চুয়াডাঙ্গায় দুজনের মরদেহ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের পোড়া লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। হবিগঞ্জের মাধবপুর ও চুয়াডাঙ্গা সদরে নারীসহ দুজনের মরদেহ পাওয়া গেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : আখাউড়া পৌর এলাকার টানপাড়ায় গতকাল সোমবার দুপুরে অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের (৩৫) পোড়া লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাঁর গলা অর্ধেক কাটা ও মাথার পেছনে আঘাত ছিল। পুলিশের ধারণা, মাথায় আঘাতের পর অচেতন করে তাঁকে জবাই করা হয়। পরে মৃত্যু নিশ্চিত করতে শরীরে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। লাশের পাশে পড়ে থাকা ব্যাগে আ. হালিম লেখা ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের ল্যাবরেটরি ফরম ও ফেনী থেকে আখাউড়া আসার আন্তনগর মহানগর গোধূলি ট্রেনের গত রবিবারের টিকিট ছিল। গতকাল বিকেল পর্যন্ত যুবকের পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। এ ব্যাপারে আখাউড়া থানার ওসি মো. মোশারফ হোসেন তরফদার বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের ধরন দেখে মনে হচ্ছে শত্রুতাবশতই এটা করা হয়েছে। মাথায় আঘাত দিয়ে জবাইয়ের পর তাঁর (যুবক) শরীরে আগুন দেওয়া হয় বলে মনে হচ্ছে। ’

হবিগঞ্জ : মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সীমানাপ্রাচীরের কাছে অজ্ঞাতপরিচয় নারীর (৩০) অর্ধগলিত লাশ পাওয়া গেছে।

খবর পেয়ে পুলিশ গতকাল সোমবার সকালে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। পুলিশের ধারণা, ধর্ষণের পর তাঁকে হত্যা করে লাশটি ফেলে গেছে দুর্বৃত্তরা। ১০-১২ দিন ধরে লাশটি পড়ে ছিল। এ ব্যাপারে একটি মামলা হয়েছে। মাধবপুর থানার ওসি মোকতাদির হোসেন জানান, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

চুয়াডাঙ্গা : সদর উপজেলায় নিখোঁজের চার দিন পর মানসিক ভারসাম্যহীন যুবক আজাবুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে উপজেলার শৈলগাড়ী গ্রামের মাঠ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। আজাবুল একই গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের ছেলে।


মন্তব্য