kalerkantho


শাবিপ্রবি শিক্ষক সমিতি নির্বাচন

উপাচার্যবিরোধী প্যানেলের জয়

শাবিপ্রবি প্রতিনিধি   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে আওয়ামী সমর্থিত ও উপাচার্য অধ্যাপক ড. আমিনুল হক ভূইয়াবিরোধী ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ’ প্যানেল নিরঙ্কুশ বিজয় পেয়েছে। সভাপতি পদে অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুল আলম এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মোহাম্মদ মহিবুল আলম ফের নির্বাচিত হয়েছেন। ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনেও এ দুজন একই পদে বিজয়ী হয়েছিলেন। শিক্ষকদের প্যানেলটি ২০১৫ সালে স্বজনপ্রীতি ও দুর্নীতির অভিযোগ তুলে উপাচার্যের বিরুদ্ধে টানা চার মাস আন্দোলন করেছিল।

গত রবিবার সকাল থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ শেষে রাত ১২টার দিকে নির্বাচনের ফল ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক ড. মুশতাক আহমদ। ৫১৩ ভোটারের মধ্যে ৩৬৯ জন তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

নির্বাচনে ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ’ প্যানেল সামসুল আলম-মহিবুল আলম পরিষদ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, পাঁচজন

সদস্য নিয়ে ১১টি পদের ৯টিই জিতে নেয়।

অন্যদিকে আওয়ামী-বাম সমর্থিত ও উপাচার্যপন্থী ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্তচিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ’ প্যানেল থেকে সহসভাপতি ও একজন সদস্য পদের প্রার্থী জয়ী হন।

অন্যদিকে বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত ‘মহান মুক্তিযুদ্ধ, বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ ও ধর্মীয় মূল্যবোধে শ্রদ্ধাশীল শিক্ষক’ প্যানেল থেকে কেউ জিততে পারেননি।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী সামসুল আলম-মহিবুল আলম পরিষদ থেকে যুগ্ম সম্পাদক পদে চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-হোসাইনী, কোষাধ্যক্ষ পদে মো. আনোয়ার হোসেন, সদস্য পদে মো. সাইফুল ইসলাম, মো. আফজাল হোসেন, ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, মুহাম্মদ ওমর ফারুক ও করিমা বেগম নির্বাচিত হয়েছেন।

রাশেদ তালুকদার-জহির উদ্দিন আহমদ পরিষদ থেকে সহসভাপতি পদে ড. মো. জহির বিন আলম এবং সদস্য পদে ড. মো. আখতারুল ইসলাম নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নানা আয়োজন

শাবিপ্রবির ২৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী নানা আয়োজনে উদ্যাপিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে প্রশাসন ভবনের সামনে থেকে উপাচার্য অধ্যাপক মো. আমিনুল হক  ভূইয়ার নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়।

শোভাযাত্রায় ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে শোভাযাত্রাটি মুক্তমঞ্চে গিয়ে কেক কাটার মধ্য দিয়ে শেষ হয়। অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার মো. ফজলুর রহমানের পরিচালনায় এ সময় কোষাধ্যক্ষ ড. মো. ইলিয়াস উদ্দীন বিশ্বাস, সিন্ডিকেট সদস্য ড. মো. কবির হোসেন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এর আগে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপাচার্য।


মন্তব্য