kalerkantho


ভ্রাম্যমাণ আদালত

নির্যাতন ও ফোনে প্রশ্নপত্র ফাঁস, দুই যুবকের জেল

বেকারি ব্যবসায়ীকে জরিমানা

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও রাজবাড়ীতে বিভিন্ন অভিযোগে দুই যুবককে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। যশোরের কেশবপুরে জরিমানা করা হয়েছে এক বেকারি ব্যবসায়ীকে।

আদালত পরিচালনা করা হয় গতকাল রবিবার।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : নাসিরনগরে বাবার দেওয়া নির্যাতনের অভিযোগে মাদকাসক্ত যুবক সুজন আলীকে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। নাসিরনগরের ইউএনও মো. লিয়াকত আলীর ভ্রাম্যমাণ আদালত এ সাজা দেন। এর আগে  পশ্চিমপাড়ার সোহরাব আলী ছেলে সুজনকে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

রাজবাড়ী : পাংশা শহরে এসএসসি পরীক্ষার একটি কেন্দ্র থেকে আটক বহিরাগত ওয়াজেদ আলী সেখের (২০) মোবাইল ফোনে এসএসসির গণিত বিষয়ের প্রশ্নপত্র এবং ওই সব প্রশ্নের উত্তরপত্র পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ইউএনও নজরুল ইসলামের ভ্রাম্যমাণ আদালত ওয়াজেদকে দুই বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন। ওয়াজেদ উপজেলার চরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও গত বছর কুষ্টিয়া পলিটেকনিক্যাল ইনস্টিটিউট থেকে ডিপ্লোমা কোর্স শেষ করেছেন। কেশবপুর (যশোর) : লেবেলবিহীন ও মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যদ্রব্য রাখার অভিযোগে কেশবপুর শহরের ঢাকা বেকারির মালিক সবুজ হোসেনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আদালত পরিচালনা করেন ইউএনও শরীফ রায়হান কবীর।


মন্তব্য