kalerkantho


কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

হামলা ভাঙচুর, তিন চিকিৎসক আহত

আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে গাজীপুরের কালীগঞ্জে চিকিৎসকের ওপর হামলা ও হাসপাতাল ভাঙচুর করা হয়েছে। এতে তিন চিকিৎসক আহত হয়েছেন। গত মঙ্গলবার রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার প্রতিবাদে ও জড়িতদের বিচারের দাবিতে গতকাল বুধবার রোগী দেখা বন্ধ রাখেন চিকিৎসকরা।

পুলিশ এ ঘটনায় আক্তার মোল্লা (৪৫) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি তুমুলিয়া গ্রামের রহিম মোল্লার (মৃত) ছেলে ও কালীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার অরূপ কুমার দাস জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত পাশের নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের কলিঙ্গা গ্রামের বাবুল মিয়াকে (৪৫) কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে স্বজনরা। তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য জাতীয় হৃদরোগ ইনিস্টিটিউটে নিতে পরার্মশ দেওয়া হয়। অন্য এক রোগী নিয়ে হাসপাতালের অ্যাম্বুল্যান্স ঢাকায় থাকায় রোগীর স্বজনদের বিকল্প অ্যাম্বুল্যান্স বা গাড়ির ব্যবস্থা করার কথা বলা হয়। গাড়ি সংগ্রহের চেষ্টাকালে রাত ৮টার দিকে বাবুল মিয়ার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে নিজেদের সরকারদলীয় লোক পরিচয়ে বাবুল মিয়ার চাচাশ্বশুর আক্তার মোল্লা একই এলাকার ফয়সাল, জুলহাস, মামুন, সুমনসহ ১০-১২ সহযোগী নিয়ে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে হামলা চালান।

তাঁরা কক্ষের দরজা-জানালা, কম্পিউটার, চেয়ার-টেবিল ও চিকিৎসার কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জাম ভাঙচুর করেন। এ সময় বাধা দিলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মীর মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, ইনডোর চিকিৎসক আশীষ কুমার বণিক ও উপসহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার মো. আব্দুল মোতালিবকে মারধর করা হয়। অরূপ কুমার খবর পেয়ে সেখানে গেলে তাঁকেও লাঞ্ছিত করে হামলাকারীরা। পরে হাসপাতালে পুলিশ এলে হামলাকারীরা চলে যায়।

অরূপ কুমার অভিযোগ করেন, ঘটনার পর রাত সোয়া ৮টায় কালীগঞ্জ থানায় ফোন করা হলেও পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে রাত ৯টায়। অথচ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে থানার দূরত্ব মাত্র ৫০০ গজ।

জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মীর মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, ঘটনাটি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকিকে জানানো হয়েছে। তিনি দোষীদের গ্রেপ্তারে ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে তাঁদের জানিয়েছেন।

কালীগঞ্জ থানার ওসি মো. আলম চাঁদ জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।


মন্তব্য