kalerkantho


রিপন পালিয়ে এখন ঢাকায়!

কাঁদছে অবুঝ দুই শিশু

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া   

৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



রিপন পালিয়ে এখন ঢাকায়!

আট দিন ধরে হাসছেন না হাসি। কথা বলছেন না, চোখ মেলে তাকানোর শক্তিটুকুও নেই।

তাঁর চোখ খোলার অপেক্ষায় দিন-রাত শয্যা পাশে বসে আছে দুই অবুঝ শিশু ফাহাদ ও ফারিয়া। মাথায় সেলায় দেওয়া কাটা দাগগুলো দেখে চোখের পানি মুছে মুছে মায়ের জন্য প্রার্থনা করছে তারা।

বগুড়ার শিবগঞ্জ থানা পুলিশ এখনো স্বামী রিপনকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তবে কালের কণ্ঠ’র নিজস্ব অনুসন্ধানে জানা গেছে, বগুড়া থেকে পালিয়ে রিপন এখন ঢাকার কচুক্ষেতে অবস্থান করছে। সেখানে সম্পর্কে রিপনের নানা হন এমন একজনের বাড়িতে গা ঢাকা দিয়েছে সে।

বুধবার সকালে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, হাসির মাথার দুই পাশে বসে আছে তাঁর দুই শিশু সন্তান। শিশু ফারিয়া এই প্রতিবেদককে দেখেই বলে উঠল, ‘আংকেল মা তো চোখ খুলছেই না। আমার মা কথাও বলছে না। মনে হয় রাগ করেছে।

আপনি একটু বলুন না চোখ খুলতে। ’

জানা গেছে, শিবগঞ্জের কালাই ইউনিয়নের বাসিন্দা রিপনের দুই সহযোগী দুলাল ও শাহীনের সঙ্গে তার নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে। তারা এলাকার খবর নিয়মিত জানাচ্ছে রিপনকে। একই সঙ্গে পুলিশের হাতে ধরা না দিয়ে সরাসরি আদালতে আত্মসমর্পণ করার পরিকল্পনা করেছে সে। তার ঘনিষ্ঠ একাধিক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিউরো সার্জন সুশান্ত পাল বলেছেন, ‘হাসির অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও শঙ্কা কাটেনি। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি। তবে তাঁর কথা বলতে আরো বেশ কিছু সময় লাগবে। ’

শিবগঞ্জ থানার ওসি শাহীদ মাহমুদ জানান, রিপনকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, আট দিন আগে স্বামী রিপন হাসিকে রাম দা দিয়ে ১৬টি কোপ দেয়।


মন্তব্য