kalerkantho


কর্মচারী নিয়োগে অনিয়ম

নীলফামারীর জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে মামলা

নীলফামারী প্রতিনিধি   

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



নীলফামারীতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিকের ২৭টি পদে লোক নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে ওই অভিযোগ করেন বঞ্চিত প্রার্থীরা।

বঞ্চিতরা সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন, গত ৩ ফেব্রুয়ারি ওই ২৭টিসহ সাঁটমুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক সাতটি পদের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল ১০টা থেকে শুরু হওয়া এক ঘণ্টা ২০ মিনিট সময়ে ৭০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় চার হাজার ৯৩০ জন প্রার্থী অংশ নেন। ওই বিপুলসংখ্যক পরীক্ষার্থীর উত্তরপত্র তিন থেকে চার ঘণ্টার মধ্যে নিরীক্ষা করে ফল প্রকাশ করা হয়। এরপর গত ৫ ও ৬ ফেব্রুয়ারি ব্যবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা নিয়ে ৭ ফেব্রুয়ারি পছন্দের প্রার্থীদের নিয়োগ দিয়ে ওই দিনই কাজে যোগদান করানো হয়েছে।

তরিঘড়ি করে জেলা প্রশাসনের ওই নিয়োগপ্রক্রিয়া সম্পন্ন এবং নিয়োগপ্রাপ্তদের কাজে যোগদান করানোর বিষয়টি বিস্ময়কর।

অভিযোগকারীরা বলেন, পক্ষপাতিত্ব ও প্রহসনের ওই পরীক্ষা এবং নিয়োগপ্রক্রিয়া স্থগিতের দাবিতে গত সোমবার যুগ্ম জেলা জজ আদালতে একটি মামলা করা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে মামলা চলাকলে ওই নিয়োগপ্রক্রিয়া থেকে বিরত

থাকার জন্য কেন নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে না, তা নোটিশ প্রাপ্তির ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জানতে চেয়েছেন আদালত।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক জাকীর হোসেন বলেন, ‘তাদের অভিযোগ সত্য না। বিভাগীয় কমিশনারের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের কমিটি যথাযথভাবে পরীক্ষা নিয়ে নিয়োগ দিয়েছে।

মামলার বিষটি আইনি প্রক্রিয়ায় মোকাবিলা করা হবে। ’


মন্তব্য