kalerkantho


গলায় জুতার মালা কাটা হলো চুল

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



গলায় জুতার মালা

কাটা হলো চুল

নির্যাতিত সেই গৃহবধূ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার তারাবতে এক লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধূকে এক মাস ঘরে আটক রেখে নির্যাতন করে শশুরবাড়ির লোকজন। বধূর গলায় জুতার মালা পরিয়ে, চুল কেটে ও বেঁধে রেখে মারধর করা হয়।

গতকাল রবিবার দুপুরে ওই বধূকে উদ্ধার ও দেবরকে আটক করে পুলিশ।

নির্যাতিত বধূ জানান, প্রায় ১৫ বছর আগে তারাবর আরব আলীর ছেলে কোরবান আলীর সঙ্গে সিরাজুল ইসলামের (মৃত) মেয়ে মায়ার বিয়ে হয়। প্রেমের ফাঁদে ফেলে ছয় মাস আগে কোরবান আলী তাঁকে দ্বিতীয় বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকে সতিন মায়া, স্বামী কোরবান, দেবর শিপু, ফুপু শাশুরি শেলি তাঁর ওপর নির্যাতন চালিয়ে আসছে। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার এলাকায় বিচার-সালিস হয়েছে। কিছুদিন নির্যাতন বন্ধ ছিল। গত মাস থেকে ঘরে আটকে রেখে ফের নির্যাতন চালায়। গতকাল তাঁর হাত-পা বেঁধে ফেলে। পরে প্রকাশ্যে গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেয়।

একপর্যায়ে কাঁচি দিয়ে চুল কেটে দেয়। এ ছাড়া লাঠি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশ থেঁতলে দেয়। খবর পেয়ে মেয়ের মা পুলিশকে অবহিত করেন। পরে রূপগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মনিরুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে। এ সময় অভিযুক্ত দেবরকে আটক করা হয়। স্বামী-সতিনসহ অন্যরা পালিয়ে যায়। নির্যাতিত বধূকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁর পরিবারের লোকজন নির্যাতনকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে।

এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘মামলা নেওয়া হয়েছে। আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ’

 


মন্তব্য