kalerkantho

25th march banner

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নতুন সিভিল সার্জন

দুই চিকিৎসকের দ্বন্দ্বের অবসান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন হিসেবে বৃহস্পতিবার দুপুরে দায়িত্ব নিয়েছেন ডা. নিশিত নন্দী মজুমদার। এর আগে তিনি খাগড়াছড়িতে সিভিল সার্জন পদে কর্মরত ছিলেন। ডা. নিশিত যোগ দেওয়ায় প্রায় এক মাস ধরে দুই চিকিৎসকের মধ্যে চলতে থাকা দ্বন্দ্বের অবসান হলো।

গত ৩১ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব এ কে এম ফজলুল হক স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে ডা. নিশিত নন্দীকে তিন দিনের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যোগদানের আদেশ দেওয়া হয়। একই প্রজ্ঞাপনে ডা. মো. মুসা খানকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মহাখালীর বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) হিসেবে যোগদানের আদেশ দেওয়া হয়। এ অবস্থায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. শাহ আলম এখন নিজ কর্মস্থল আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচও) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন হিসেবে সর্বশেষ দায়িত্বে থাকা হাসিনা আক্তার অবসরে যান গত ৩১ ডিসেম্বর। তিনি অবসরে যাওয়ার আগেই গত ২৭ ডিসেম্বর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচও) ডা. মো. মুসা খানকে সিভিল সার্জনের চলতি দায়িত্ব নেওয়ার প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। অন্যদিকে ৩০ ও ৩১ ডিসেম্বর ছুটির দিন থাকায় ২৯ ডিসেম্বর শেষ কর্মদিবসে হাসিনা আক্তার আখাউড়ার ইউএইচও ডা. মো. শাহ আলমকে দায়িত্বভার বুঝে নেওয়ার চিঠি দেন। এ অবস্থায় ডা. শাহ আলম দায়িত্ব নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করেন। বিষয়টি স্বাস্থ্যমন্ত্রী পর্যন্ত গড়ায়। এ নিয়ে গত ৫ জানুয়ারি কালের কণ্ঠে সংবাদও প্রকাশিত হয়।

এ ব্যাপারে জেলা স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) সভাপতি ও বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসেসিয়েশন (বিএমএ) সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. আবু সাঈদ বলেন, ‘আমরা ড্যাব নেতা মুসা খানকে যেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন পদে বসানো না হয় সে বিষয়টি শুরু থেকেই বলে আসছিলাম। এ অবস্থায় নতুন সিভিল সার্জন আসায় আমরা তাঁকে স্বাগত জানিয়েছি। ’ মুসা খানকে সিভিল সার্জন করতে একজন সংসদ সদস্য ডিও লেটার (আধা সরকারি পত্র) দিয়েছিলেন বলেও জানান তিনি।


মন্তব্য