kalerkantho

26th march banner

১ ম ► ক লা ম

ধর্ষণ

পিরোজপুর প্রতিনিধি   

২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার দীর্ঘা ইউনিয়নে গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় ৯ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে মেয়েটিকে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছেন।

গতকাল দুপুরে মেয়ের বাবা থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, মেয়েটি স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী। মঙ্গলবার রাতের খাবার খেয়ে শিশুটি পাশের বাড়ির হরলাল সুতারের ঘরে টিভি দেখতে যায়। ওই বাড়িতে মামা দিপংকর সুতারের বাসায় অবস্থান করছিল ঘোষকাঠী কলেজের ছাত্র অমিতাভ সরকার (১৯)। সে উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের অমল সরকারের ছেলে। রাত সাড়ে ৮টার দিকে কৌশলে শিশুটিকে ডেকে পাশের হোগলা খেতে নিয়ে সে নির্যাতন করে। এরপর রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে ফেলে পালিয়ে যায়। পালিয়ে যাওয়ার আগে এ কথা কাউকে জানালে জানে মেরে দেওয়া হবে বলে হুমকি দেয়। পরে শিশুটি বাড়ি ফিরে ভয়ে কাউকে কিছু না জানিয়ে ঘুমানোর চেষ্টা করে। তার অস্বাভাবিক রক্তক্ষরণ দেখে প্রথমে তার মা বিষয়টি জানতে চান। এরপর মাকে সব খুলে বলে শিশুটি। গভীর রাতে প্রচুর রক্তক্ষরণ হলে শিশুটি একপর্যায়ে অচেতন হয়ে পড়ে। মা-বাবা স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন।


মন্তব্য