kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কালের কণ্ঠে খবর প্রকাশ

দুই বছর পর মাকে ফিরে পেল ছেলে

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



কালের কণ্ঠে প্রকাশিত খবর ও ছবি দেখে সেই অসুস্থ মাকে শনাক্ত করেছেন ছেলেরা। গতকাল শুক্রবার নান্দাইলে এসে হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া বৃদ্ধ মাকে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন বড় ছেলে দেবাশীষ চন্দ্র রায়।

তিনি জানান, পারিবারিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে মানসিক বিপর্যস্ত হয়ে দুই বছর আগে নিখোঁজ হন মা টগর রানী রায়।

দেবাশীষ জানান, তাঁদের বাড়ি হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ পৌর শহরে। ১৬ বছর আগে বাবা নিতাই চন্দ্র রায়ের মৃত্যুর পর প্রায় কোটি টাকার জমির ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে কাকাদের সঙ্গে তাঁদের বিরোধের সৃষ্টি হয়। এ অবস্থায় তাঁর মাকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করতেন কাকারা। একপর্যায়ে মানসিক বিপর্যস্ত হয়ে ২০১৪ সালের জুন মাসে নিখোঁজ হন মা। থানায় জিডিসহ বহু খোঁজাখুঁজি করেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।

গতকাল রাতে নান্দাইল থানায় জিডির পর ওসি ও প্রেস ক্লাব সভাপতি হান্নান মাহমুদের উপস্থিতিতে টগর রানীকে বড় ছেলে দেবাশীষের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে দেবাশীষ উন্নত চিকিৎসার জন্য মাকে অ্যাম্বুল্যান্সে  করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের উদ্দেশে  নিয়ে যান।

এর আগে গত সোমবার ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার নান্দাইল-কেন্দুয়া সড়কের পাশ থেকে থানার ওসি আতাউর রহমান গাড়ি পাঠিয়ে বৃদ্ধাকে উপজেলা হাসপাতালে নেওয়ার ব্যবস্থা করেন।

এ ঘটনায় শুক্রবার কালের কণ্ঠে ‘অসুস্থ মাকে রেখে পালাল ছেলে’ শিরোনামে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।


মন্তব্য