kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শৈলকুপা নগরকান্দা চৌদ্দগ্রামে তিন হত্যা

তিন স্থানে আরো দুই খুন, এক লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

২১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ঝিনাইদহের শৈলকুপা, ফরিদপুরের নগরকান্দা ও কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে আলাদা ঘটনায় চালকসহ তিনজনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। মাদারীপুর সদরে গৃহবধূকে বিষ খাইয়ে মারার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে বড় ভাইয়ের লাঠির আঘাতে খুন হয়েছেন ছোট ভাই। এ ছাড়া কুমিল্লার তিতাসে নদী থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর : 

ঝিনাইদহ : শৈলকুপা উপজেলার দেবীনগর গ্রামে আতিয়ার খাঁ নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। সামাজিক বিরোধ ও আধিপত্য বিস্তারের জেরে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

কুমিল্লা : মেমোরি কার্ড ফেরত চাওয়ায় চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় সোহাগ নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার পাঁচদিন পর গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় ঘাতক মীর হোসেনের বিরুদ্ধে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন সোহাগের চাচা আবদুল খালেক। সোহাগ রাজেন্দ্রপুর গ্রামের আবদুল করিমের (মৃত) ছেলে।  

সাতক্ষীরা : আখ খাওয়া নিয়ে বিবাদের জেরে বড় ভাই মাসুম বিল্লাহর লাঠির আঘাতে খুন হয়েছেন ছোট ভাই মুতাচ্ছির বিল্লাহ। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে শ্যামনগর উপজেলার মানিকপুর গ্রামে। এ ব্যাপারে এখনো কোনো মামলা হয়নি। মাদারীপুর : সদর উপজেলায় নাজমা বেগম নামের এক গৃহবধূকে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার দক্ষিণ খাকছাড়া গ্রামের বাড়ি থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী সুজাত আলী বেপারী ও তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে। পরিবার, স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিয়ের পর সুজাত আলী বেপারী এক মেয়ের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। এ নিয়ে স্ত্রী নাজমা বেগমের সঙ্গে তার প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ হতো। এর জেরে গত বুধবার রাতে নাজমাকে বিষ খাওয়ায় তাঁর স্বামী। শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নেয়। পরে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে নাজমা মারা যান। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে বাড়িতে তাঁর লাশ ফেলে স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মাদারীপুর মর্গে পাঠায়।

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) : কুমিল্লার তিতাস উপজেলার দড়িকান্দি এলাকায় তিতাস নদ থেকে অজ্ঞাতপরিচয় এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে লাশটি উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ওই যুবকের পরনে কালো রঙের জিন্সের প্যান্ট ও ফুলহাতা শার্ট ছিল।

ফরিদপুর : নগরকান্দা উপজেলায় মুরগি চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফিরোজ মোল্লা নামের এক মাহেন্দ্রচালককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার দুই দিন পর গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। অভিযুক্তদের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ব্যাপারে থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। ফিরোজ উপজেলার ছোট পাইককান্দি গ্রামের মোতাহার মোল্লার ছেলে। স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে তাঁর। পুলিশ জানায়, গত মঙ্গলবার রাতে মাহেন্দ্রচালক ফিরোজ মোল্লার বাড়ি থেকে একটি মুরগি চুরি হয়। এ ঘটনায় ফিরোজ তাঁর প্রতিবেশী মান্দার শেখকে দায়ী করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মান্দার ও তার কয়েক সহযোগী ফিরোজকে বেদম মারধর করলে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে তাঁকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল তিনি মারা যান।


মন্তব্য