kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ছাত্রী ধর্ষণের ভিডিও তুলে ১৯ ভরি সোনা নিয়েছেন গৃহশিক্ষক

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ গতকাল মঙ্গলবার সকালে এক গৃহশিক্ষককে আটক করেছে। যাঁর বিরুদ্ধে ছাত্রীকে ধর্ষণ ও এর ভিডিও তুলে নগদ ২৫ হাজার টাকা ও ১৯ ভরি সোনা নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আটক সমীর দত্ত (৩৯) নারায়ণগঞ্জ শহরের গলাচিপার গোয়ালবাড়ির পল্টনের ভাড়াটিয়া মনোহর দত্তের (মৃত) ছেলে।

মামলার বরাত দিয়ে তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান জানান, জনৈক ব্যবসায়ীর মেয়েকে চতুর্থ শ্রেণি থেকে বাসায় পড়াতেন সমীর। মেয়েটি এখন স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে পড়েন। মেয়েটির সঙ্গে শহরের এক যুবকের ফেসবুকের মাধ্যমে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মনোমালিন্য হলে মেয়েটিকে বিভিন্ন কবিরাজের কাছে নিয়ে যান সমীর। সরলতার সুযোগে গত বছরের ডিসেম্বরে রকির বাসায় নিয়ে গিয়ে নির্যাতন করেন সমীর দত্ত। এভাবে দীর্ঘদিন নির্যাতন করেন। একপর্যায়ে মোবাইলে ভিডিও করেন। সেই ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়াসহ আত্মীয়স্বজনের কাছে পৌঁছে দেওয়ার হুমকি দিয়ে টাকা ও স্বর্ণালংকার হাতিয়ে নেন। এর পরও নগদ টাকা দাবি করেন সমীর। এতে রাজি না হওয়ায় ফের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন। বাধ্য হয়ে মেয়ের বাবা থানায় মামলা করেন।

অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে পোশাক শ্রমিককে ধর্ষণ

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার সকালে পাগলা শাহি মহল্লা থেকে জামালকে (২২) আটক করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। তিনি ওই এলাকার মোবারক মিয়ার ছেলে। মেয়েকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগে গত সোমবার রাতে মামলা করেছেন এক পোশাক শ্রমিকের (১৫) বাবা। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই কাজি এনামুল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।


মন্তব্য