kalerkantho

দুই ভাইয়ের মৃত্যু

স্বজনদের কান্না

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



দূর থেকেই শোনা যাচ্ছিল কান্নার শব্দ। বাড়ির ভেতরে গিয়ে দেখা গেল স্বামী মহসিনের জন্য বিলাপ করছেন স্ত্রী সামসুন্নাহার।

তাঁর পাশেই দুই ছেলেকে হারানো মা সাজেদা বেগম বারবার মূর্ছা যাচ্ছিলেন। মৃত মহসিনের একমাত্র ছেলে এসএসসি পরীক্ষার্থী নকিব হাসানও (১৬) বাবার জন্য হাউমাউ করে কাঁদছে। এ সময় বাড়িভর্তি স্বজন ও প্রতিবেশীরা তাদের সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করছে। গত রবিবার চাচাতো ভাইকে বাঁচাতে সেপটিক ট্যাংকে নেমে মারা যাওয়া দুই সহোদর মহসিন মিয়া ও মাসুম মিয়ার বাড়িতে গিয়ে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। তাঁরা গাজীপুরের কালীগঞ্জের উত্তরসোম গ্রামের মৃত মোজাফফর হোসেনের ছেলে। এক সন্তানের জনক মহসিন (৪২) তুমলিয়া ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি আর তাঁর ছোট ভাই মাসুম মিয়া (৩০) তেলের ব্যবসা করতেন। তাঁদের মৃত্যুতে এলাকার পরিবেশ ভারী হয়ে উঠেছে।

এলাকাবাসী জানায়, গত রবিবার দুপুরে বাড়ির অব্যবহৃত একটি সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কারের জন্য স্যানেটারি মিস্ত্রি জুয়েল নামেন। এ সময় তিনি বিষাক্ত গ্যাসে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে উদ্ধার করতে তাঁর জ্যাঠাতো ভাই মাসুম ট্যাংকে নামেন।

তিনিও অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁর বড় ভাই মহসিন ট্যাংকে নামলে তিনিও অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে স্থানীয়রা তাঁদের তিনজনকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাঁদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মহসিন ও মাসুমের মৃত্যু হয়। তাঁদের চাচাতো ভাই জুয়েল এখনো টঙ্গীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এদিকে রবিবার রাত ১০টায় উপজেলার সোমবাজার মাঠে দুই সহোদরের লাশ জানাজা শেষে লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।


মন্তব্য