kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ইলিশ নিষেধাজ্ঞা

২১ জনের জেল, বিপুল কারেন্ট জাল জব্দ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



২১ জনের জেল, বিপুল কারেন্ট জাল জব্দ

প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ সংরক্ষণের জন্য ১২ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর পর্যন্ত নদীতে ইলিশ ধরা, মজুদ, পরিবহন ও বাজারজাত করার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বিভিন্ন জেলায় নদীতে ইলিশ ধরছে বা ধরার চেষ্টা করছে এক শ্রেণির জেলে।

এ অপরাধে ২১ জেলেকে এক বছর করে কারাদণ্ড ও বিপুল পরিমাণ নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত ও মৎস্য বিভাগ। বৃহস্পতিবার রাতে ও গতকাল শুক্রবার এসব অভিযান চালানো হয়। কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

মানিকগঞ্জ : হরিরামপুর উপজেলার পদ্মা নদীতে বৃহস্পতিবার রাতে ইলিশ ধরার সময় আটক ১৭ জনকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। গতকাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুবিনা ফেরদৌসের ভ্রাম্যমাণ আদালত এ দণ্ড দেন। এ ছাড়া শিবালয় উপজেলার যমুনা নদীতে মাছ ধরার সময় আটক দুই জেলেকে তিন হাজার টাকা করে জরিমানা করেন ইউএনও কামাল মোহাম্মদ রাশেদের ভ্রাম্যমাণ আদালত। হরিরামপুর থেকে ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ৭৫ কেজি ইলিশ এবং শিবালয় থেকে পাঁচ হাজার মিটার কারেন্ট জব্দ করা হয়।

ঝালকাঠি : নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া এলাকায় সুগন্ধা নদীতে গতকাল মা ইলিশ ধরার সময় দুই জেলেকে আটক ও চার হাজার ১০০ মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ করে মৎস্য বিভাগ। পরে ইউএনও শাহ মো. কামরুল হুদার ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই দুই জেলেকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেন এবং জব্দ করা জাল নলছিটি ফেরিঘাটে পুড়িয়ে ফেলা হয়। দণ্ডিতরা হলেন বরিশালের পশ্চিম রূপাতলী এলাকার বাসিন্দা মো. রাজ্জাক মোল্লা ও সবুজ হোসেন। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. মারুফ হোসেন মিনার জানান, পুলিশের সহযোগিতায় ওই অভিযান চালানো হয়।

রাজবাড়ী : রাজবাড়ীর পদ্মা নদীতে অভিযান চালিয়ে দুই জেলেকে এক বছর করে কারাদণ্ড ও দুই হাজার মিটার কারেন্ট জাল উদ্ধার করা হয়েছে। দণ্ডিতরা হলেন জেলা সদরের কালিতলা গ্রামের বাচ্চু সরদার ও বাবু সরদার। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজবাড়ীর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাওছার হোসেন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এর আগে জেলা মৎস্য অফিসার মিজানুর রহমান ও সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বিজন কুমার নন্দির নেতৃত্বে পদ্মা নদীতে অভিযান চালানো হয়।

মাগুরা : বৃহস্পতিবার রাতে মহম্মদপুর উপজেলার মধুমতি নদীতে ইলিশ ধরার সময় ২০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দের পর ধ্বংস করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। ইউএনও মো. শাহীন হোসেনের নেতৃত্বে নদীর বাবুখালী থেকে শিরগ্রাম পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয় বলে জানান মহম্মদপুর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ কুমার বিশ্বাস। অভিযান অব্যাহত থাকবে।

পিরোজপুর : পিরোজপুরের কচা ও কালীগঙ্গা নদীতে ইলিশ মাছ ধরার সময় অভিযান চালিয়ে ২৭ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করে পুড়িয়ে দিয়েছে জেলা মৎস্য বিভাগ। বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এ অভিযান চলে। অভিযান পরিচালনা করেন পিরোজপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ রাশেদ উজ্জামান ও জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. শাহিদুল ইসলাম। একই রাতে জিয়ানগর উপজেলার কচা ও বলেশ্বর নদের মোহনায় মাছ ধরার প্রস্তুতির সময় উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর ও পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৫০ হাজার টাকার কারেন্ট জাল জব্দ করে।

বাগেরহাট : বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত মৎস্য বিভাগ ও পুলিশ মংলা, মোরেলগঞ্জ ও শরণখোলা উপজেলার বিভিন্ন নদ-নদীতে অভিযান চালিয়ে ১৫ হাজার মিটার জাল জব্ধ করেছে। এর মধ্যে ১২ হাজার মিটার ইলিশ ধরা জাল ও তিন হাজার ৫০০ মিটার কারেন্ট জাল রয়েছে বলে জানান জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আবদুল অদুদ।


মন্তব্য