kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঘরে স্ত্রীর, গাছে স্বামীর লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ফরিদপুরে একটি বাড়ি থেকে এক নারীর ও বাড়ির পাশের গাছ থেকে তাঁর স্বামীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলার মাচ্চর ইউনিয়নের শিবরামপুর গ্রাম থেকে লাশ দুটি উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে থানায় হত্যা ও অপমৃত্যুর মামলা প্রক্রিয়াধীন।

মৃত দুজন হলেন শিবরামপুর গ্রামের মনসুর শেখ (৫০) ও তাঁর স্ত্রী জাহানারা বেগম (৪৫)।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, মনসুর শেখের শিবরামপুর বাজারে মনসুর স্টোর নামের একটি দোকান আছে। মনসুর-জাহানারার বিবাহিত এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। ছেলে ঝিন্টু শেখ (৩০) ঢাকায় গাড়িচালকের কাজ করেন। মেয়ে জেসমিন (২৫) থাকেন পাশের মাঝারকান্দি গ্রামে শ্বশুড়বাড়িতে।

গতকাল ভোর ৬টার দিকে প্রতিবেশী মোতালেব শেখ মনসুরকে বাড়ির পাশের বাগানে একটি কাঁঠাল গাছের সঙ্গে গলায় রশি বাঁধা ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে অন্যদের জানান। পরে তাঁরা ওই বাড়িতে গিয়ে শোবার ঘরের খাটে জাহানারা বেগমের গলায় গামছা পেঁচানো লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। ঘরটি বাইরে থেকে ছিটকিনি দিয়ে আটকানো ছিল।

মনসুরের ভাড়াটিয়া নূর ইসলাম বলেন, প্রায় প্রতিদিনই মনসুর ও জাহানারার মধ্যে নানা কারণে ঝগড়া হতো। গত বুধবার অনেক রাত পর্যন্ত তাঁরা ঝগড়া করেন। সকালে ঘুম থেকে উঠে তিনি দুজনের মৃতদেহ দেখতে পান।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ওসি মো. নাজিমউদ্দিন আহমেদ জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পারিবারিক কলহের জেরে মনসুর জাহানারাকে গলায় গামছা পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যার পর আত্মহত্যা করেন।


মন্তব্য