kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ফেসবুকে স্ট্যাটাস, পদ খোয়ালেন সভাপতি

রাঙামাটি পৌর ছাত্রলীগ

রাঙামাটি প্রতিনিধি   

১০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জেলা ছাত্রলীগ নিয়ে ‘আপত্তিকর’ স্ট্যাটাস দেওয়ার অভিযোগ এনে রাঙামাটি পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ এম আলাউদ্দিনকে সংগঠনের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছে জেলা ছাত্রলীগ। রাঙামাটি পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ এম আলাউদ্দিনকে দলীয় শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ডের জন্য সংগঠনের সব পদ-পদবি স্থগিত ও সাংগঠনিক সব কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে বলে গত শনিবার রাতে জেলা ছাত্রলীগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

একই সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, ‘পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তাঁর যেকোনো অনৈতিক কর্মকাণ্ডের জন্য রাঙামাটি জেলা ছাত্রলীগ দায় গ্রহণ করবে না। ’ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল জব্বার সুজন ও সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমার স্বাক্ষর রয়েছে ওই সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

এ ব্যাপারে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা বলেন, আলাউদ্দিন ফেসবুকে জেলা ছাত্রলীগ নিয়ে আপত্তিকর ও কটূক্তিপূর্ণ কথাবার্তা লিখে স্ট্যাটাস দেওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে সাংগঠনিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তাঁর স্ট্যাটাসগুলো জেলা ছাত্রলীগ শুধু নয়, ছাত্রলীগের সামগ্রিক ভাবমূর্তিরও ক্ষতি করেছে। তিনি বলেন, সংগঠনের স্বার্থেই এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে অব্যাহতি পাওয়া পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ এম আলাউদ্দিন বলেন, ‘একটি ফেসবুক স্টেটাসের কারণে সংগঠন থেকে অব্যাহতি দেওয়ার ঘটনা বিরল এবং বিস্ময়কর। আমার স্ট্যাটাস পছন্দ না হলে তাঁরা আমাকে ফোনে বলতে পারতেন, শোকজ করতে পারতেন। কিন্তু এসব না করে সরাসরি অব্যাহতি দেওয়ার মাধ্যমে তাঁরা পুরনো বিরোধের প্রতিশোধই নিয়েছেন, এটি গঠনতান্ত্রিকভাবেও তাঁরা পারেন না। ’ তিনি পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, যাঁরা বহিষ্কার করেছেন তাঁরা অতীতে কী কী স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন, তাঁদের ঘনিষ্ঠ সহচররা যখন দলের সিনিয়র নেতাদের অপমান করে ও হুমকি দিয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন তখন তাঁরা কোথায় ছিলেন?

গত ৭ অক্টোবর নিজের ফেসবুক স্টেটাসে আলাউদ্দিন লিখেছিলেন, ‘আজ বুঝলাম জেলা ছাত্রলীগ কি করতে পারে। আর আজ দেখালাম আমরা কি করতে পারি। অযোগ্যদের হাতে রাজনীতি হয় না। হয় শুধু ফাঁকা গুলি ফুটানো... ঘুমান কোন সমস্যা নাই। ’ এই স্টেটাসের নিচেই তিনি আরেকটি কমেন্টে লেখেন, ‘ছাগল দিয়া হাল চাষ হয় না। ’ এর জের ধরেই তাঁকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ এম আলাউদ্দিনকে অব্যাহতি দেওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে পৌর কমিটির নেতাকর্মীরা।


মন্তব্য